http://www.hazarikapratidin.com RSS feed from hazarikapratidin.com en http://www.hazarikapratidin.com - পিআইবি’র প্রশিক্ষণে ফেনী সাংবাদিক ইউনিয়নের ২৮ সংবাদকর্মী http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114758 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/29/1669878598_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/29/1669878598_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥</span><br>তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) আয়োজিত বুধবার ২ দিন ব্যাপী মোবাইল সাংবাদিকতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা সমাপ্ত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধন করেন প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ। এতে অংশগ্রহণ করছেন ফেনীতে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ২৮ জন সংবাদকর্মী। বুধবার প্রশিক্ষণ শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানে পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদেরসভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন গনযোগাযোগ<br><br>অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জসিম উদ্দন,বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পরিচালক প্রশাসন জাকির হোসেন প্রমুখ। উক্তকর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন পিআইবি'র সিনিয়র প্রশিক্ষক শাহ শেখ মজলিশ ফুয়াদ ও প্রশিক্ষক জুলহাস উদ্দিন নিপুন,সাব্বির আহমেদ। সন্ধায় পিআইবি সেবা প্রদান নিয়ে আলোচনা করেন উপ-পরিচালক প্রশাসন মোঃ জাকির হোসেন। ফেনী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি যুগান্তর জেলা প্রতিনিধি যতন মজুমদার জানান, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে প্রেস ইনস্টিটিউটে ২ দিন ব্যাপী মোবাইল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণের অংশ নিয়েছেন ফেনীতে কর্মরত ২৮ জন সংবাদকর্মী। আশা করি এ প্রশিক্ষণ সংবাদকর্মীদের পেশাগত দায়িত্ব পালন ও দক্ষতা উন্নয়নে সহায়ক ভুমিকা রাখবে। ফেনীর সংবাদকর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মশালার সুযোগ করে দেয়ার জন্য প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) মহাপরিচালক ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।<br><br>প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশ বেতার প্রতিনিধি মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী, ডিবিসি ও বাংলাদেশ অবজারভার প্রতিনিধি মোহাম্মদ আবু তাহের ভূঁঞা, চ্যানেল আই প্রতিনিধি রবিউল হক রবি, ভোরের কাগজ প্রতিনিধি শুকদেব নাথ তপন, ফেনী সাংবাদিক ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক মিলন, দেশ টিভি প্রতিনিধি শেখ ফরিদ আকতার, বৈশাখী টেলিভিশন প্রতিনিধি রাজন চন্দ্র দেব নাথ,আমাদের নতুন সময় প্রতিনিধি এমরান পাটোয়ারি, মোহনা টেলিভিশন প্রতিনিধি তোফায়েল আহম্মেদ নিলয়, কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ মনির সহ ২৮ জন সংবাদ কর্মী।</body></HTML> 2022-12-01 13:09:28 1970-01-01 00:00:00 ভূমিদস্যুদের দখলে নওয়াব ফয়জুন্নেছার স্মৃতি বিজড়িত বাড়ী http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114757 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/29/1669819682_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/29/1669819682_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥</span><br>ভূমিদস্যুদের and nbsp; থাবায় ঐতিহ্য হারানোর উপক্রম কুমিল্লার লাকসাম পশ্চিম গাঁয়ের উপমহাদেশের প্রথম মুসলিম মহিলা নওয়াব ফয়জুন্নেছা চৌধুরানীর বাড়ী। and nbsp; হাতি ও ঘোড়াগাড়ীতে চড়ে নওয়াব ফয়জুন্নেছা তার বাড়ীতে আসা-যাওয়া যে পথ ও দরজা ব্যবহার করতেন তা এখন অস্তিত্ব হারানোর দ্বারপ্রান্তে। ছৈয়দ আলী মিয়া নামক এক ভুমিদস্যু অবৈধভাবে ও গায়ের জোরে ঐ পথ বন্ধ করে ৫ বছর আগে শুরু করে বাড়ীর নির্মাণ কাজ।প্রত্নতত্ব অধিদপ্তর আপত্তি জানালে তৎকালীন সংসদ সদস্য ও বর্তমান এলজিআরডি মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে ভূমিদস্যু ছৈয়দ আলী মিয়ার অবৈধ বাড়ীর কাজ বন্দ্বেে উপজেলা প্রশাসন নির্দেশ দেন। দীর্ঘদিন অর্ধসমাপ্ত অবস্থায় পড়ে থাকে নির্মানাধীন বাড়ীটি and nbsp; । and nbsp; কিন্তু সম্প্রতি ভূমিদস্যু রবিউল হোসেন সবুজের সক্রিয় তত্বাবধানে নওয়াব বাড়ীর পূর্ব দিকের প্রবেশপথ সংলগ্ন ঐ বিল্ডিং and nbsp; এর অবশিষ্ট কাজ সম্পন্ন করা হয়। যাতে এখন কয়েকটি পরিবার বসবাস শুরু করছে।যা প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের নীতিমালার পরিপন্থী । <br><br>উল্লেখ্য, নবাব ফয়েজুন্নেছা জীবদ্দশায় তার সম্পদের একটি অংশ জনকল্যাণে ওয়াকফ রাহে লিল্লাহ করেন। যাতে তাঁর আওলাদের উক্ত সম্পত্তি ব্যবহার ও ভোগ দখলের শর্ত থাকলেও বিক্রয় ও হস্থান্তর নিষিদ্ধ করা হয়। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য ওয়াকফ এস্টেট মোতওয়াল্লী সৈয়দ মাছুদুল হক ও তার ভাই সৈয়দ কামরুল হকের and nbsp; সহায়তায় ভূমিদস্যু আবুল কালাম বিপু ও and nbsp; দেলোয়ার হোসেন সবুজ ওয়াকফকৃত চিহ্নিত অনেক জায়গা and nbsp; ভূয়া দলিলের and nbsp; মাধ্যমে কেনা বেচা সম্পন্ন করছেন। দেলোয়ার হোসেন সবুজের নির্মিত বসতবাড়ীটি তার জ্বলত্ব উদহারন।এই বাড়ীটি ফয়জুন্নেসা এস্টেটের ওয়াকফকৃত সম্পদ। এছাড়া আরো বেশ কিছু জায়গা এখন জাল দলিলের মাধ্যমে বিক্রির চেষ্টা চলছে।<br><br> and nbsp;এলাকাবাসীর দাবী অবিলম্বে এসব ভূমিদস্যুদের কবল থেকে নওয়াব বাড়ীর প্রবেশের পুর্বদিকের গেট সহ ওয়াকফকৃত অন্যান্য সম্পদ উদ্ধার করা হোক। বন্ধ হোক ধর্ম মন্ত্রনালয়ের আওতাধীন ওয়াকফ এস্টেট ও সংস্কৃতিক মন্ত্রনালয়ের ঠেলাঠেলি। সেই সাথে প্রত্বতত্ব অধিদপ্তরের তত্বাবধানে অবিলম্বে and nbsp; প্রস্তাবিত ফয়জুন নেছা যাদুঘর চালু করা হোক।<br><br> and nbsp;উল্লেখ্য, নারী শিক্ষার অগ্রদূত মহারানী নওয়াব ফয়জুন্নেছা চৌধুরানী লাাকসাম সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনের মাধ্যমে ইতিহাসে অমর হয়ে রয়েছেন।তার হাতে গড়া মসজিদের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত আছেন তিনি।<br><br><br> </body></HTML> 2022-11-30 20:46:22 2022-11-30 20:48:53 ঋণ জালিয়াতির শিকার শতাধিক কৃষক, তোপের মুখে ব্যাংক কর্মকর্তারা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114756 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/28/1669734035_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/28/1669734035_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ঋণ আদায় করতে গিয়ে জনতার তোপের মুখে পড়েছে জনতা ব্যাংক যশোর চাঁচড়া শাখার কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সকালে সদর উপজেলার বাগেরহাট বাজারে ঋণ আদায় করতে যান ব্যাংকের কর্মকর্তারা। এ সময় ঋণ জালিয়াতির শিকার কৃষকদের তোপের মুখে পড়েন তারা। জনরোষের ভয়ে ওই এলাকা থেকে পালিয়ে আসেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান। ঋণ জালিয়াতির ঘটনা ফাঁস হয়ে পড়ায় জনতা ব্যাংক খুলনা বিভাগীয় কার্যালয় থেকে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপক জাকির হোসেন। তারা বুধবার (৩০ নভেম্বর) তদন্তে এসে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলবেন। দোষীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।<br><br>সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জনতা ব্যাংকের খেলাপি ঋণ আদায়ের বিশেষ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। এরই আওতায় ব্যাংক ঋণ আদায় শুরু করেছে। এই ঋণ আদায়ের জন্য জনতা ব্যাংক চাঁচড়া শাখা থেকে ঋণ গ্রহিতা অন্ততঃ দুই শতাধিক কৃষকের নামে চিঠি দেওয়া হয়। এরমধ্যে অন্ততঃ শতাধিক কৃষক তাদের ঋণের টাকা পরিশোধ করে দিয়েছেন। কিন্তু ব্যাংকের কর্মকর্তাদের জালিয়াতির কারণে ওই সব কৃষককে খেলাপিসহ মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করতে যান। ঋণ পরিশোধ করার পরও চিঠি দেওয়ায় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে কৃষকরা।<br><br>কৃষক আব্দুর রউফ জানান, তিনি ২০-২২ বছর আগে ব্যাংক থেকে ১৬ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। এরপর তিনি দেশের বাইরে চলে যান। বিদেশ থেকে তিনি এক আত্মীয়র মাধ্যমে সাড়ে ১৪ হাজার টাকা পরিশোধ করেন। এ বছর তাকে ৫১ হাজার টাকা ঋণখেলাপি দেখিয়ে পত্র দেয় ব্যাংক। পরবর্তীতে ওই আত্মীয়র সঙ্গে যোগাযোগ করেন আব্দুর রউফ। ওই আত্মীয় তাকে ব্যাংকের সাড়ে ১৪ হাজার টাকার ভাউচার দেন। এই ভাউচার নিয়ে ব্যাংকের আসলে কর্মকর্তা রইচ সেই টাকা পরিশোধ করার আশ্বাস দেন।<br><br>একইভাবে করিচিয়া গ্রামের কৃষক ইব্রাহিম হোসেন ২০১১ সালে ৪০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। ২০১৬ সালে তাকে জানানো হয় তিনি ৮০ হাজার টাকা ঋণ খেলাপি। ওই বছর ইব্রাহিম ৭০ হাজার টাকা পরিশোধ করেন এবং সব ঋণ মওকুপ করার জন্য শাখা ব্যবস্থাপককে অনুরোধ করেন। কিন্তু ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তার বাকী ১০ হাজার টাকা পরিশোধ না দেখিয়ে ১০ হাজার টাকা ঋণী দেখায়। এরপর গত বছর (২০২১) সালে তাকে আবারও ১৭ হাজার ৩৯৪ টাকা ৬৫ পয়সা পরিশোধ করার জন্য বলা হয়। ৬ ডিসেম্বর ইব্রাহিম ওই টাকা পরিশোধ করে বর্তমান ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মো. আসাদুজ্জামানের কাছ থেকে প্রত্যয়নপত্র নেন।<br><br>গত ২০ নভেম্বর ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামানের স্বাক্ষরিত এক পত্রে বলা হয়, ‘২০১১ সালে ৪০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করেছিলেন। যার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। বর্তমানে ঋণটি খেলাপিতে পরিণত হয়েছে। আপনার নিকট ২৮ হাজার ৮৯০ টাকা বকেয়া পাওনা রয়েছে। মেয়াদ উত্তীর্ণের পর ঋণটি পরিশোধ করার জন্য মৌখিক ও লিখিতভাবে জানানো হলেও পরিশোধ করার কোনো উদ্যোগ নেননি। গতকাল (২৯ নভেম্বর) বাগেরহাট বাজারে ঋণ আদায় ক্যাম্পে এসে পাওনা ২৮ হাজার ৮৯০ টাকা পরিশোধের জন্য পুনরায় অনুরোধ করা হলো। অন্যথায় ঋণ আদায়ের সর্বশেষ ব্যবস্থা হিসেবে আপনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে ঋণের টাকা আদায় করা হবে।’<br><br>শুধু আব্দুর রউফ কিম্বা ইব্রাহিম হোসেনই নয়, রুদ্রপুর করিচিয়াসহ আশপাশের গ্রামের অন্ততঃ শতাধিক কৃষককে ঋণ খেলাপিতে পরিণত করা হয়েছে। মঙ্গলবার ব্যাংক কতৃপক্ষ ঋণ আদায় করতে যান। এসময় স্থানীয় জনতার তোপের মুখে পড়েন তারা। ব্যাংকের চাঁচড়া শাখার ব্যবস্থাপক ঋণ জালিয়াতির শিকার কৃষকদের জানান, আপনাদের ঋণ আপডেট করার জন্য এখানে আসা হয়েছে। যাদের ঋণ নিয়ে সমস্যা তাদের শাখায় গিয়ে সমাধান করতে হবে।<br><br>ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতি সম্পর্কে জানতে চাইলে ব্যাংকের উপ ব্যবস্থাপক জাকির হোসেন বলেন, ‘আমি সকালে জানতে পেরেছি বাগেরহাট বাজারে কৃষকরা ঋণ নিয়ে সমস্যা হয়েছে। আমি এ ঘটনা জানার পর খুলনা জিএমকে জানিয়েছি। সেখান থেকে আগামীকাল ৩ সদস্যর কমিটি আসবে। তারা তদন্ত করবে। তদন্তে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ <br><br></body></HTML> 2022-11-29 20:59:41 1970-01-01 00:00:00 হাজী আবদুল সাত্তার ফাউন্ডেশন কর্তৃক বৃত্তি পরিক্ষা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114755 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/28/1669732340_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/28/1669732340_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥</span><br>কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলাধীন শ্যামিরখিল গ্রামে হাজী আবদুল সাত্তার ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজীত নূরানী তৃতীয় শ্রেণীর বৃত্তি পরিক্ষা and nbsp; ও ফলাফল বিতরণী অনুষ্ঠান and nbsp; ২৬ শে নভেম্বর উক্ত and nbsp; অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের and nbsp; সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শ্যামিরখিল প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের সভাপতি and nbsp; আবদুল হানান and nbsp; প্রধান অতিথি and nbsp; and nbsp; হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব হযরত মাও.রুহুল আমিন সিদ্দিকী, তিলিপ দরবার শরীফ।<br>বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাও.মোঃজকির হোসেন উপাধ্যক্ষ, বাঙ্গড্ডা ফাজিল মাদরাসা, মাও.মোঃ রফিকুল ইসলাম মজুমদার, <br>সহকারী অধ্যাপক, and nbsp; মন্তলী রহমানিয়া ফাজিল মাদরাসা, মাও.মোঃশাহ আলম আরবি প্রভাষক, বড়বাম ফাজিল মাদরাসা, মাও.খাদেমুল ইসলাম, <br>আরবি প্রভাষক, মরকটা ইসলামিয়া আলিম মাদরাসা, মাও.মোঃআনোয়ার হোসাইন আরবি প্রভাষক, বড়বাম ফাজিল মাদরাসা, শাখাওয়াত হোসেন সোহাগ, সহকারী শিক্ষক,মোঃআবদুল হান্নান সিনিয়র সহ-সভাপতি, হাজী আবদুল সাত্তার ফাউন্ডেশন, মাও.রুহুল আমিন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক, ।এতে সভাপতিত্ব করেন মৌঃরবিউল হক,, and nbsp; সাবেক সহকারী মৌলভী, বড়বাম ফাজিল মাদরাসা ও খতিব, শ্যামিরখিল জামে মসজিদ। and nbsp; ফাউন্ডেশনের বৃত্তি পরিচালক বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী আবুল হাশেম বাবলু and nbsp; উপস্থিত ছিলেন অত্র এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ। হাজী আব্দুল ছাত্তার ফাউন্ডেশন বৃত্তি পরীক্ষা-২০২২ইং সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ার পর ফলাফল ঘোষণা করেন মরকটা ইসলামিয়া আলিম মাদরাসা আরবি প্রভাষক ও বৃত্তি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাও.নজরুল ইসলাম। এইবার নূরানী তৃতীয় শ্রেণীর ৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩২০ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে- ট্যালেন্টপুলে - ৫ জনকে ২০০০ টাকা করে, সাধারণ গ্রেড- ১৩ জনকে and nbsp; ১০০০ টাকা করে, ও and nbsp; সাধারণ গ্রেড (বিশেষ)- ২১জনকে ৫০০ টাকা করে মোট ৩৯ জনকে and nbsp; বৃত্তি প্রদান করা and nbsp; হয়।</body></HTML> 2022-11-29 20:30:11 1970-01-01 00:00:00 কোনো ব্যাংক ‘চেক ডিজঅনার’ মামলা করতে পারবে না http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114754 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669208287_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669208287_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">এখন থেকে কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান ঋণ আদায়ের জন্য কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে চেক ডিজঅনার মামলা করতে পারবে না বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান ঋণ আদায়ের জন্য শুধুমাত্র ২০০৩ সালের অর্থঋণ আইনের বর্ণিত উপায়ে অর্থঋণ আদালতে মামলা করতে পারবে। পাশাপাশি বর্তমানে আদালতে চলমান ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দায়ের করা সব চেক ডিজঅনার মামলার কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলে রায়ে বলা হয়েছে। <br><br>বুধবার (২৩ নভেম্বর) বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ ঋণ আদায়ের জন্য এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্র্যাক ব্যাংকের চেক ডিজঅনার মামলা বাতিল করে এ রায় দেন। রায়ে আদালত বলেছেন, ব্যাংক ঋণের বিপরীতে যে চেক নিচ্ছে সেটা জামানত। বিনিময়যোগ্য দলিল নয়। জামানত হিসেবে রাখা সেই চেক দিয়ে চেক ডিজঅনার মামলা করা যাবে না।<br><br>আদালত বলেন, ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ একটি চুক্তির মাধ্যমে নেওয়া হয়ে থাকে। ব্যাংকের কিছু দুর্নীতিবাজ, অসাধু কর্মকর্তা নিজেদের স্বার্থে, তাদের হিডেন এজেন্ডা বাস্তবায়নে চেকের অপব্যবহার করে মামলা করে থাকে। তাদের ব্যবহার দাদন ব্যবসায়ীদের মতো।<br>আদালত বলেন, ঋণের বিপরীতে ব্ল্যাংক চেক নেওয়াটাই বেআইনি। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো দীর্ঘদিন ধরে এই বেআইনি কাজ করে আসছে।<br>রায়ে হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের প্রতি নির্দেশনা দিয়ে বলেন, আজ থেকে কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান যদি চেক ডিজঅনার মামলা করে তাহলে আদালত তা সরাসরি খারিজ করে দেবেন। একইসঙ্গে তাদেরকে ঋণ আদায়ের জন্য অর্থঋণ আদালতে পাঠিয়ে দেবেন।<br><br>আদালত বলেন, ব্যাংক হওয়ার কথা ছিল গরিবের বন্ধু, কিন্তু তা না হয়ে ব্যাংক ও বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান গরিবের রক্ত চুষছে। এটা হতে পারে না। যারা হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে খেলাপি হচ্ছে ব্যাংক তাদের ঋণ মওকুফ করার কথা শুনি। কিন্তু কোনো গরিবের ঋণ মওফুফ করার কথা কোনোদিন শুনিনি। নীলকর চাষিদের মতো, দাদন ব্যবসায়ীদের মতো যেনতেন ঋণ আদায় করাই তাদের লক্ষ্য। লোন আদায়ের জন্য অর্থঋণ আইনে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান মামলা দায়ের না করে চেক ডিজঅনার মামলা করছে। এ কারণে আমাদের ক্রিমিনাল সিস্টেম প্রায় অকার্যকর হয়ে গেছে। তাই এখন থেকে ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান শুধুমাত্র অর্থঋণ আদালতে মামলা দায়ের করতে পারবে। অন্যকোনো আইনে নয়।<br>ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি হাইকোর্টের রায়ের আলোকে নির্দেশনা জারি করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনরকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। <br></body></HTML> 2022-11-23 18:56:58 1970-01-01 00:00:00  ১০১ ইয়াবা কারবারির দেড় বছর করে কারাদণ্ড http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114752 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207882_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207882_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় আত্মসমর্পণ করা ১০১ ইয়াবা কারবারিকে দেড় বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার (২৩ নভেম্বর) কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর মো. ফরিদুল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে একই দিন দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাঈল এ রায় দেন। এ সময় আদালতে ১৭ আসামি উপস্থিত ছিলেন। বাকিরা পলাতক রয়েছেন।<br><br>আদালত সূত্র থেকে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি টেকনাফ পাইলট হাইস্কুল মাঠে ১০২ জন ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ করেন। আত্মসমর্পণের পর তাদের কাছ থেকে ৩ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ৩০টি দেশীয় অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এই মর্মে উল্লেখ করে আত্মসমর্পণকারীদের বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় মাদক ও অস্ত্র আইনে তৎকালীন ওসি (তদন্ত) এবি এম এস দোহা পৃথক দুটি মামলা করেন।<br><br>এদিকে মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ২১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ ও আসামিদের পক্ষে সাক্ষীদের জেরা করা হয়। আলামত প্রদর্শন, রাসায়নিক পরীক্ষা ফলাফল যাচাই, আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়াসহ মামলাটি বিচারিক কার্যক্রম শেষ হয়েছে। নথি পর্যালোচনায় আদালত জানান, ২০১৯ সালে ৩৭ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী বন্ধুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি ৩ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ও ৩০টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। আত্মসমর্পণকারী আসামিরা উদ্ধার করা আলামত তাদের বলে স্বীকার করেন। অস্ত্র মামলায় ৩৪ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন।</body></HTML> 2022-11-23 18:50:57 1970-01-01 00:00:00 জঙ্গি ছিনতাইয়ে অংশ নেওয়া একজন গ্রেপ্তার http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114751 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207795_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207795_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">আদালত প্রাঙ্গণ থেকে জঙ্গি সম্পৃক্ততায় দণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আটককৃতের নাম মেহেদী হাসান অমি ওরফে রাফি (২৪)। তিনি এ ঘটনায় পুলিশের করা মামলার আসামি। বুধবার (২৩ নভেম্বর) ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) একজন কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।<br><br>পুলিশের ওই কর্মকর্তার দাবি, মেহেদী হাসান জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় সরাসরি অংশ নিয়েছিলেন। তিনি আনসার আল ইসলামের সামরিক শাখার একজন সদস্য। তার বাড়ি সিলেট জেলায়। ব্লগার নাজিমউদ্দিন সামাদ হত্যার মিশনেও অংশ নিয়েছিলেন এই রাফি। গত রোববার দুপুরে ঢাকার জজ আদালতের সামনে থেকে দুটি মোটরসাইকেলে করে চারজন লোক এসে পুলিশের চোখে স্প্রে করে আসামিদের ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তারা প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। আসামিরা হলেন সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার মাধবপুরের মইনুল হাসান শামীম এবং লালমনিরহাটের আদিতমারি উপজেলার ভেটেশ্বর গ্রামের আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব।<br><br></body></HTML> 2022-11-23 18:49:28 1970-01-01 00:00:00 কেমন হলো বিপিএলের দলগুলো? http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114750 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207583_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207583_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ক্রীড়া ডেস্ক </span><br>রাজধানীর একটি অভিজাত পাঁচতারকা হোটেলে হয়ে গেলো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) নবম আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফট। আগেই সরাসরি চুক্তিতে ছিলেন কয়েকজন ক্রিকেটার। বুধবার (২৩ নভেম্বর) ড্রাফট থেকে বাকি ক্রিকেটারদের নিয়ে স্কোয়াড গুছিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।<br><br><span style="font-weight: bold;">একনজরে ৭ দলের স্কোয়াড</span><br><br><span style="font-weight: bold; color: rgb(255, 69, 0);">কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: মোস্তাফিজুর রহমান, শাহিন শাহ আফ্রিদি (পাকিস্তান), মোহাম্মদ রিজওয়ান (পাকিস্তান), হাসান আলি (পাকিস্তান), খুশদিল শাহ (পাকিস্তান), মোহাম্মদ নবি (আফগানিস্তান), আবরার আহমেদ (পাকিস্তান), জশ কেবি (ইংল্যান্ড), ব্রেন্ডন কিং (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।<br><br>ড্রাফট: লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন, তানভীর ইসলাম, ইমরুল কায়েস, আশিকুর জামান, জাকের আলি অনিক, শন উইলিয়ামস (জিম্বাবুয়ে), চ্যাডউইক ওয়ালটন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), সৈকত আলি, আবু হায়দার রনি, নাঈম হাসান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ও দেলোয়ার হোসেন।<br><br><span style="font-weight: bold; color: rgb(75, 0, 130);">ঢাকা ডমিনেটরস</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: তাসকিন আহমেদ, চামিকা করুণারাত্নে (শ্রীলঙ্কা), দিলশান মুনাবিরা (শ্রীলঙ্কা)।<br><br>ড্রাফট: মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার, শরিফুল ইসলাম, আরাফাত সানি, নাসির হোসেন, আল-আমিন হোসেন, শান মাসুদ (পাকিস্তান), আহমেদ শেহজাদ (পাকিস্তান), অলক কাপালি, মনির হোসেন খান, আরিফুল হক, মুক্তার আলি, মিজানুর রহমান, উসমান গণি (আফগানিস্তান) ও সালমান ইরশাদ (পাকিস্তান)।<br><br><span style="font-weight: bold; color: rgb(255, 20, 147);">চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: আফিফ হোসেন, বিশ্ব ফার্নান্দো (শ্রীলঙ্কা), কার্টিস ক্যাম্ফার (আয়ারল্যান্ড), আশান প্রিয়াঞ্জন (শ্রীলঙ্কা)।<br><br>ড্রাফট: মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, শুভাগত হোম, মেহেদি হাসান রানা, ইরফান শুক্কুর, মেহেদি হাসান মারুফ, জিয়াউর রহমান, ম্যাক্স ও'দাউদ (নেদারল্যান্ডস), উন্মুখ চাঁদ (ভারত/যুক্তরাষ্ট্র), তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী, ফরহাদ রেজা, তৌফিক খান তুষার।<br><br><span style="font-weight: bold; color: rgb(30, 144, 255);">ফরচুন বরিশাল</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: সাকিব আল হাসান, রাহকিম কর্নওয়াল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), মোহাম্মদ ওয়াসিম (পাকিস্তান), ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), ইব্রাহিম জাদরান (আফগানিস্তান), ইফতেখার আহমেদ (পাকিস্তান), নাভিন উল হক (আফগানিস্তান), উসমান কাদির (পাকিস্তান), কুশল পেরেরা (শ্রীলঙ্কা), রহমানউল্লাহ গুরবাজ (আফগানিস্তান) ও করিম জানাত (আফগানিস্তান)।<br><br>ড্রাফট: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, ইবাদত হোসেন, এনামুল হক বিজয়, কামরুল ইসলাম রাব্বি, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, হায়দার আলি (পাকিস্তান), চতুরাঙ্গা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা), সৈয়দ খালেদ আহমেদ, সাইফ হাসান, কাজী অনিক, সানজামুল ইসলাম, সালমান হোসেন ইমন।<br><span style="font-weight: bold; color: rgb(0, 100, 0);"><br>খুলনা টাইগার্স</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: তামিম ইকবাল, আজম খান (পাকিস্তান), ওয়াহাব রিয়াজ (পাকিস্তান), আভিশকা ফার্নান্দো (শ্রীলঙ্কা), নাসিম শাহ (পাকিস্তান)।<br><br>ড্রাফট: মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, ইয়াসির আলি চৌধুরী, নাসুম আহমেদ, নাহিদুল ইসলাম, মুনিম শাহরিয়ার, সাব্বির রহমান, দাসুন শানাকা (শ্রীলঙ্কা), পল ফন মেকেরিন (নেদারল্যান্ডস), শফিকুল ইসলাম, প্রীতম কুমার, হাবিবুর রহমান সোহান, মাহমুদুল হাসান জয়।<br><br><span style="font-weight: bold; color: rgb(218, 165, 32);">রংপুর রাইডার্স</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: নুরুল হাসান, সিকান্দার রাজা (জিম্বাবুয়ে), হারিফ রউফ (পাকিস্তান), মোহাম্মদ নাওয়াজ (পাকিস্তান), শোয়েব মালিক (পাকিস্তান), পাথুম নিশাঙ্কা (শ্রীলঙ্কা), জেফ্রি ভ্যান্ডারসাই (শ্রীলঙ্কা)।<br><br>ড্রাফট: শেখ মেহেদি হাসান, হাসান মাহমুদ, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, রাকিবুল হাসান, শামীম হোসেন, রিপন মণ্ডল, আজমতউল্লাহ ওমরজাই (আফগানিস্তান), অ্যারন জোনস (যুক্তরাষ্ট্র), রনি তালুকদার, পারভেজ হোসেন ইমন, রবিউল হক, আলাউদ্দিন বাবু।<br><span style="font-weight: bold; color: rgb(255, 0, 0);"><br>সিলেট স্ট্রাইকার্স</span><br><br>সরাসরি চুক্তি: মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোহাম্মদ আমির (পাকিস্তান), মোহাম্মদ হারিস (পাকিস্তান), থিসারা পেরেরা (শ্রীলঙ্কা), ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা), রায়ান বার্ল (জিম্বাবুয়ে), কামিন্দু মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা), কলিন অ্যাকারম্যান (নেদারল্যান্ডস)।<br><br>ড্রাফট: মুশফিকুর রহিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, রেজাউর রহমান রাজা, নাবিল সামাদ, তৌহিদ হৃদয়, রুবেল হোসেন, টম মুরস (ইংল্যান্ড), গুলবাদিন নাইব (আফগানিস্তান), জাকির হাসান, নাজমুল ইসলাম অপু, আকবর আলি, মোহাম্মদ শরিফউল্লাহ, তানজিম হাসান সাকিব।</body></HTML> 2022-11-23 18:43:08 1970-01-01 00:00:00 ফেনীতে সাংবাদিকের কোমরে রশি বেঁধে হেনস্তা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114749 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207108_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/22/1669207108_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left"> and nbsp;ফেনী প্রতিনিধি ॥<br>ফেনীতে গায়েবী মামলায় সাংবাদিক এস এম ইউসুফ আলীকে গ্রেপ্তারের পর কোমরে রশি বেঁধে আদালতে সোপর্দ করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে গণমাধ্যম কর্মীরা। বুধবার ২৩ নভেম্বর দুপুরে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে অতি উৎসাহী পুলিশ ও পুলিশ-সাংবাদিক ঐক্য বিনষ্টকারী কর্মকর্তাদের ফেনী থেকে প্রত্যাহারের দাবী জানান সাংবাদিক নেতারা। <br>জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহেরের সভাপতিত্বে এবিএম নিজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় বক্তারা বলেন, ফেনীর সাবেক পুলিশ সুপার এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারের দেয়া গায়েবি মামলায় স্থানীয় সাংবাদিক এসএম ইউসুফ আলীকে গ্রেপ্তার করে দাগনভূঞা থানা পুলিশ। <br><br>আটকের পর তাকে একের পর এক মানসিক হেনস্তা করতে থাকে পুলিশ সদস্যরা। ঘুম থেকে তুলে তাকে টেনে-হেছড়ে থানায় নিয়ে আসার সময় প্যান্ট পরার সুযোগও দেয়া হয়নি। পরে গত মঙ্গলবার দুপুরের পর তাকে কোমরে দড়ি বেঁধে হাতে হ্যান্ডক্যাপ লাগিয়ে অপমানজনক অবস্থায় আদালতে সোপর্দ করা হয়। মানববন্ধনে সাংবাদিকরা পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনার কাছে ওয়ারেন্ট রয়েছে, সেজন্য যে কাউকে আপনি গ্রেপ্তার করতে পারেন। তবে তাকে ব্যক্তি গত ভাবে চোর, ডাকাত কিংবা দন্ডপ্রাপ্ত আসামীর মত কোমরে দড়ি বেঁধে আদালতে সোপর্দ করে সাংবাদিকতা পেশাকে অবজ্ঞা করা হয়েছে। বক্তারা দাগনভূঞাঁ থানার ওসি হাসান ইমামসহ অতি উৎসাহী পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেনী থেকে প্রত্যাহারের জোর দাবি করেন। ২৪ ঘন্টার মধ্যে তাদের প্রত্যাহার করা না হলে সাংবাদিকরা আরও কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন অন্যথায় পুলিশের সকল ধরনের নিউজ বর্জন করা হবে। <br><br>বক্তারা সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত গায়েবী মামলা গুলো প্রত্যাহার করার জোর দাবি জানান। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও দৈনিক ফেনীর সময় সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, ফেনী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক সমকালের স্টাফ রিপোর্টার শাহজালাল রতন, ফেনী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি একেএম আবদুর রহীম, আরটিভি প্রতিনিধি আজাদ মালদার, উদয় পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম এ সাঈদ খান, দৈনিক স্টার লাইনের সহযোগী সম্পাদক জসিম মাহমুদ, সাপ্তাহিক স্বদেশ পত্র সম্পাদক এন এন জীবন,যমুনা টিভির প্রতিনিধি আর এম আরিফুর রহমান, ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ও এটিএন নিউজ প্রতিনিধি দিদারুল আলম, সময় টিভির স্টাফ রিপোর্টার আতিয়ার সজল, এসএ টিভির প্রতিনিধি মাইনুল রাসেল।<br><br>ফাইনেন্সিয়াল এক্সপ্রেস প্রতিনিধি মফিজুর রহমান, নিউজ টুয়েন্টিফোর’র জেলা প্রতিনিধি নজির আহমদ রতন, দৈনিক মানবজমিন’র জেলা প্রতিনিধি নাজমুল হক শামীম, ফেনী সমাচার সম্পাদক মুহিববুল্লাহ ফরহাদ, স্বদেশকন্ঠ সম্পাদক নুর তানজিলা রহমান, নীহারিকার নির্বাহী সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, ফেনী সাংবাদিক ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ মনির, ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির কোষাধ্যক্ষ ও দৈনিক স্টার লাইন বার্তা সম্পাদক নুর উল্লাহ কায়সার, ইউথ জার্নালিস্ট ফোরাম জেলা সাধারণ সোলায়মান হাজারী ডালিম, দৈনিক প্রভাত আলোর নির্বাহী সম্পাদক সৌরভ পাটোয়ারী, দেশরূপান্তর প্রতিনিধি শফি উল্যাহ রিপন, দৈনিক আমার সংবাদ প্রতিনিধি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, আঁচল সম্পাদক শাহিদা সাম্য লীনা, হকার্স সম্পাদক তারেক মজুমদার, মোহনা টিভি প্রতিনিধি তোফায়েল আহমেদ নিলয়, গ্লোবাল টিভি জেলা প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম, দৈনিক অগ্রসর প্রতিনিধি গাজী হানিফ, দৈনিক আমার কাগজের জেলা প্রতিনিধি আলাউদ্দিন, দৈনিক ফেনীর সময় স্টাফ রিপোর্টার আরিফ আজম ও রাসেল চৌধুরী, সময়ের আলো প্রতিনিধি পিনু সিকদার, দৈনিক ফেনী’র প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল মামুন, বৈকালী’র নির্বাহী সম্পদাক মো. ইকবাল হোসেন, হাজারিকা প্রতিদিনের সাংবাদিক মো আব্দুর রহিমসহ জেলার কর্মরত সাংবাদিকরা।<br>এ সময় আবু ইউসুফ মিন্টু, হাবিব মিয়াজী, জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, দুলাল তালুকদার, শাহ শহিদ, ওমর ফারুক, মিরাজুল ইসলাম মামুন, আজিজ আল ফয়সাল, মুজাহিদুল ইসলাম জাবের, রাজু, দেলোয়ার হোসেন সৈকত, জাফর ইমাম মজুমদার রতন, আহমেদ আলী নয়ন, রবিউল হক এমএ আকাশ, আহমেদ হিমেল, ইকবাল হোসেন, পিন্টু, মোয়াজ্জেম হোসেন মালদার ও নুরুল করিম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সংহতি প্রকাশ করেন। এ দিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত বুধবার এস এম ইউসুফ আলীর মামলায় জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।</body></HTML> 2022-11-23 18:37:25 1970-01-01 00:00:00 ছেলের বিলাসবহুল ভবন, ছাদে মুরগী খামারের সঙ্গে বাবা! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114748 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/20/1669046810_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"> and nbsp;<img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/20/1669046810_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥</span><br>ছেলে সামছুল হক প্রবাসী ও ব্যবসায়ী। স্ত্রী শাহিদা আক্তারকে নিয়ে নিজ নামে ‘হক মঞ্জিল’। and nbsp; পাঁচতলা ভবনে তিনতলায় বসবাস তাদের। অথচ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী অসুস্থ বৃদ্ধ বাবাকে ফেলে রেখেছেন ভবনের ছাদে মুরগী খামারে সঙ্গে ছোট্ট টিনের ঘরে। সেখানে আছে ভাঙা একটি টিনের ঘর, নিচে চটের বিছানায় আর কিছু পানির বোতল। ময়লা, দুর্গন্ধ, মশার কামড় জুটে এই বৃদ্ধার কপালে। খাবারও খেতে হয় মুরগীর খামারে!<br>এমনই এক মানবতার জীবন নিয়ে, ছেঁড়া কাপড় জড়িয়ে কোনো রকম বেঁচে আছেন কুমিল্লা লাকসাম পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডে কলেজে রোড ও পশ্চিমগাও পুরান বাজার এলাকার বাসিন্দা ইয়াকুব আলী (৮০)। <br>জীবনের শেষ প্রান্তে এসে বুকভরা কষ্টগুলো চিৎকার করে বলতে চাইলেও বয়সের ভারে বন্ধ হয়ে গেছে তার আওয়াজ। শুধু ফ্যাল ফ্যাল করে চেয়ে আছেন তিনি।<br>এমন কষ্টের দৃশ্য সন্তানদের চোখে না পড়লেও এলাকার মানুষ ঠিকই উপলব্ধি করতে পারেন। <br>একসময় যে পিতা তাঁর ছেলেকে কোলে-পিঠে নিয়ে বড় করেছিলেন, আজ তিনি নিজেই উপেক্ষিত। সেই সন্তান বড় হয়ে স্ত্রীকে নিয়ে পাকা দালান ঘরে সাজানো বিছানায় ঘুমালেও বৃদ্ধ পিতাকে থাকতে হয় ভবনের ছাদে। একটি মাত্র টিনের ঘরে মুরগী খামারে সঙ্গে। যেখানে নেই কোনো মশারি বা বিছানা।<br>রোববার ২০ নভেম্বর and nbsp; বিকালে সরেজমিনে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখা যায়। <br>ওইদিন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা মতিন ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর। <br>স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলা কান্দিরপাড় ইউনিয়ন ছঁনগাও গ্রামের নিজ বাড়ীতে স্ত্রী ও ২ ছেলে- ৫ মেয়ে নিয়ে থাকতেন বৃদ্ধ ইয়াকুব আলী (৮০)। and nbsp; ২০০৬ সালে তার স্ত্রী মৃত্যুর পর অসুস্থ হয়ে পড়েন ইয়াকুব আলী। <br>বড় ছেলে প্রবাসী সামছুল হক ২০০৭ সালে লাকসাম পৌরসভার পশ্চিমগাঁও পুরান বাজার এলাকায় ৭ শতক সম্পত্তির মধ্যে 'হক মঞ্জিল' নামে একটি and nbsp; বহুতল ভবন নির্মিত করা হয়েছে। <br>ছেলে সামছুল হক ভবনের and nbsp; তিনতলায় স্ত্রী ও সন্তানদেরকে নিয়ে থাকেন। and nbsp; পাঁচ তলা ভবনের ছাদের ওপর একটি টিনের ঘরে রাখছেন তার বৃদ্ধ বাবাকে। ঘরের একপাশে মুরগী খামার অপর পাশে বস্ত্রহীন অবস্থায় পড়ে আছেন বৃদ্ধ ইয়াকুব আলী। চটের বিছানার আশপাশ দুর্গন্ধ ও ব্রয়লার মুরগীর ময়লা। <br> and nbsp;প্রতিনিধিকে দেখে ছুটে এলেন বৃদ্ধের ছেলে বৌ শাহিদা আক্তার । তিনি বলেন, শ্বশুর দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থ। শ্বশুরের মস্তিষ্কে সমস্যা দেখা দেওয়ার পর থেকে সার্বক্ষণিক ওষুধ ও দেখভাল করেন তিনি। কত দিন ধরে ছাদে and nbsp; রাখা হয়েছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ১-২ মাস ধরে বাবাকে রাখা হয়েছে। এর আগে আমাদের রুমে থাকতেন তিনি। তা ছাড়া তাঁকে ঘরের মধ্যে রাখা যায় না, মাথায় সমস্যার কারণে সব কিছু ওলট-পালট করেন।<br>মোবাইলে কথা হয় বৃদ্ধ বাবার বড় ছেলে সামছুল হকের সঙ্গে, তিনি অনুনয়-বিনয় করে সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ জানান। আমার বাবা মাথায় সমস্যা; ঠিকমতো কাপড় পরেন না। কোনোভাবেই ডাক্তারের কাছে নেওয়া যায় না!<br>’পিতাকে এমন অবহেলা-অযত্নে ঘরের বাইরে ফেলে রাখার বিষয়ে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। তবে এখন থেকে পিতার প্রতি যত্নবান হবেন বলে আশ্বাস দেন তিনি।<br>লাকসাম পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবু সায়েদ বাচ্চু যুগান্তরকে বলেন, ব্যক্তিগতভাবে ওই বৃদ্ধাকে প্রায়ই এলাকায় দেখতাম। গত কয়েক মাস ধরে দেখি না। তার ছেলে সন্তানরা থাকার পরও নিজ বাড়ির ছাদে বসবাস খুবই দুঃখজনক।<br>ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা মতিন বলেন, বৃদ্ধ বাবাকে এখান থেকে তাদের বাসায় নিয়ে আসার জন্য and nbsp; সময় দেওয়া হয়েছে। যদি তারা দায়িত্ব পালন না করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।<br><br><br></body></HTML> 2022-11-21 22:06:04 1970-01-01 00:00:00 সারাদেশের আদালতে নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114747 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668952414_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668952414_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ঢাকার নিম্ন আদালত থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনার পর সারাদেশের আদালতগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। রোববার (২০ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।<br><br>তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতির নির্দেশে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন থেকে সারাদেশের অধস্তন আদালতগুলোতে নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। যেন কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা না ঘটে। উল্লেখ্য, রোববার (২০ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২ টার দিকে ঢাকার নিম্ন আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে মেরে প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের সদস্য আবু সিদ্দিক সোহেল ও মইনুল হাসান শামীমকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়। <br></body></HTML> 2022-11-20 19:53:11 1970-01-01 00:00:00  দুই জঙ্গিকে ধরিয়ে দিলে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114746 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668951334_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668951334_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি মইনুল হাসান শামীম ওরফে সিফাত সামির ও মো. আবু ছিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিবকে ধরিয়ে দিতে পারলে ২০ লাখ টাকা পুস্কারের ঘোষণা দিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর। রোববার (২০ নভেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. মনজুর রহমান জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।<br><br>তিনি বলেন, পলাতক দুই জঙ্গিকে ধরিয়ে দিতে পারলে ১০ লাখ করে ২০ লাখ টাকা পুরস্কারের ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় কারও গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।<br>রোববার (২০ নভেম্বর) সচিবালয়ের নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ছিনিয়ে নেওয়ার পর পরই তাদের ধরতে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। পুলিশ তাদের হন্যে হয়ে খুঁজছে। আশা করি শিগগির তারা ধরা পড়বে।<br><br>এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তদন্তের পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে। পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন এবং লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি দুই জঙ্গি আবু ছিদ্দিক সোহেল ও মঈনুল হাসান শামীমকে ছিনিয়ে নিয়েছে জঙ্গিরা। রোববার দুপুরের দিকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে।</body></HTML> 2022-11-20 19:34:05 1970-01-01 00:00:00 কুমিল্লায় চেয়ারম্যানের পরিষদ চলে লোকমান শাহ'র হুকুমে! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114745 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668519940_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/15/1668519940_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥<br>লোকমান শাহ কোনো আধ্যাত্মিক মানুষ নয়, সবার মত একই আকৃতির । তবে মাঝে মধ্যে ব্যতিক্রম ক্ষমতার বলেন । এ যেমন মালয়েশিয়ার and nbsp; মাহাথীর তার বন্ধু । আবার কখনো মাল্টা রাষ্ট্রপতিও! হলেন সাধারণ মানুষ । বেসিক্যালি তিনি আদম বেপারী । রোমানিয়ার হাজার হাজার ভিসা রয়েছে তার হাতে । এমন বিজ্ঞাপন নজরে পড়েছে সবার । এইবার নতুন আলোচনায় । আর সেটা হল তাঁর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের পরিষদ চলে and nbsp; তার হুকুমে ! অর্থাৎ কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার রায়কোট দঃ ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান মজিব পরিষদ চালায় এই লোকমান শাহ'র কথায় । এলাকার মানুষ পরিষদে নাগরিক সেবা পাচ্ছে না । চেয়ারম্যান লোকমান শাহ'র হুকুমের বাইরে কলম ধরেন না । এমন অভিযোগ অহরহ। সম্প্রতি ঔই ইউনিয়নের শামিরখিল গ্রামের জনৈক নুরুল ইসলাম ওয়ারিশ সার্টিফিকেটের জন্য ঘুরছেন অনেকদিন থেকে । চেয়ারম্যানের সাফ জবাব লোকমান শাহ'র অনুমতি ছাড়া দেয়া যাবে না । ভুক্তভোগী নুরুল ইসলাম বলেন, আমরা ছয়ভাই তিনবোন । আমি সকল তথ্য দিয়ে ওয়ার্ড মেম্বারের সুপারিশ নিয়ে ওয়ারিশ সনদের জন্য আবেদন করেছিলাম । কিন্তু দীর্ঘ অপেক্ষার পরেও না পেয়ে অপুরনীয় ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে and nbsp; । নিরুপায় হয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর আবেদন করেছি । সেখানেও সদুত্তর পাচ্ছি না । <br>এ বিষয়ে জয়নাল আবেদীন খোকন মেম্বার বলেন, আমি সনাক্ত করে দিয়েছি। চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোন ফয়সালা দিতে পারছে না<br>রায়কোট দঃ ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান মজিব বলেন, নুরুল ইসলাম আমার কাছে কোনো দরখাস্ত করে নাই। আমার কাছে একদিন এসে দেখা করে গেছে। সে আর আসে নাই।<br>এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বলেন, আমি চেয়ারম্যানকে বলে দিয়েছি। চেয়ারম্যান কেন দিচ্ছে না তা আমি জানি না।</body></HTML> 2022-11-15 19:45:18 1970-01-01 00:00:00 বাংলাদেশি ২৮ লাখ কর্মী নেবে সৌদি http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114744 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/08/1668268974_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/08/1668268974_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">বাংলাদেশ থেকে ২৮ লাখ কর্মী নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে সৌদি সরকার। শনিবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন সৌদি আরবের ডেপুটি ইন্টেরিয়র মিনিস্টার ড. নাসের বিন আব্দুল আজিজ আল দাউদ।<br>সাক্ষাৎ শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সৌদি আরবের সঙ্গে বাংলাদেশের দুটি চুক্তি সই হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে ২৮ লাখ কর্মী নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে সৌদি সরকার। রোড টু মক্কা চুক্তি অনুসারে এখন দীর্ঘ সময় ধরে ইমিগ্রেশনের কোনও হয়রানি ছাড়াই প্লেন থেকে নেমেই হাজিরা মক্কা শরীফে চলে যেতে পারবেন।<br><br>মন্ত্রী বলেন, সৌদি আরব প্রথম দেশ হিসেবে বাংলাদেশের সাথে রুট টু মক্কা সার্ভিস চুক্তি করতে যাচ্ছে। তিনি আরও জানান, আরেকটি নিরাপত্তা বিষয়ে কথা হয়েছে। দুই দেশের পুলিশের মধ্যে ট্রেনিং বিনিময় হবে। তাদের নারী পুলিশ সদস্যরা বাংলাদেশ থেকে ট্রেনিং নেবেন। এ দেশের নারী পুলিশ সদস্যরা তাদের দেশ থেকে ট্রেনিং নেবেন। এর আগে, শনিবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে সৌদি আরবের উপ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. নাসের বিন আব্দুল আজিজ আল-দাউদ দুই দিনের সফরে ঢাকায় আসেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সৌদি উপমন্ত্রী রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে তার সাক্ষাতের কর্মসূচি রয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় তার সৌদি আরব ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে। <br></body></HTML> 2022-11-12 22:01:46 1970-01-01 00:00:00 ফেনীতে ডাকাতদের হামলায় আহত স্বর্ণ ব্যবসায়ীর মৃত্যু http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114743 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/08/1668263962_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/08/1668263962_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥</span><br>ফেনীর সোনাগাজীর জমাদার বাজারে দিনদুপুরে ডাকাতদের হামলায় আহত স্বর্ণ ব্যবসায়ী অর্জুন চন্দ্র ভাদুরি টানা ১১ দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। ৩০ অক্টোবর ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার অর্জুন শিল্পালয়ের দোকানে বাবু অর্জুন চন্দ্র দাসকে (৪৫) কুপিয়ে দিনদুপুরে ডাকাতি হয়েছিল। ওইদিন বিকেলে অর্জুনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফেনী সদর হাসপাতালে নিলে সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।<br><br>পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ওই দিন দুপুর ২টার দিকে হঠাৎ দুটি মোটরসাইকেলে সশস্ত্র পাঁচ থেকে ছয়জন অর্জুন ভাদুরির স্বর্ণের দোকানে হামলা করে। এ সময় অর্জুনকে উপর্যুপরি কুপিয়ে দোকানের শোকেস ভেঙে স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় দোকানির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে বোমা ফাটিয়ে ডাকাতদল মোটরসাইকেলে পালিয়ে যায়।<br><br>অর্জুন ভাদুরির ভাতিজা মানিক ভাদুরি জানায়, আইসিইউতে থাকা অবস্থায় তিনি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হলে শারীরিক অবস্থা আরও জটিল আকার ধারণ করে। শুক্রবার (১১ নভেম্বর) বিকালে and nbsp; কিডনি ডায়ালাইসিস করার পর তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। পরে রাত ২টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।<br><br>স্থানীয়রা জানান, ওই দোকানি স্বর্ণের ব্যবসার পাশাপাশি স্বর্ণ-বন্ধক রাখার বিনিময়ে অর্থের লেনদেন করতেন। প্রবাসীদের বন্ধক রাখা কোটি টাকার স্বর্ণালংকার রয়েছে তার কাছে। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ খালেদ হোসেন জানান, দ্রুত দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে। এ ছাড়া ঘটনার পরদিন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ জনকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হলেও ঘটনার আসল রহস্য উদ্‌ঘাটন অথবা খোয়া যাওয়া স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা উদ্ধার করা যায়নি।<br><br></body></HTML> 2022-11-12 20:38:13 1970-01-01 00:00:00 সিলভার মাল্টিপারপাসের আত্মসাৎ করা টাকা ফেরত দিতে ১০ বছর সময় চায় সোনাগাজীর আলোচিত হায়দার! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114742 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667741342_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><div><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667741342_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥</span></div><div>আমাদের সমাজে যে কোন মানুষের দুইটি নাম দেওয়া হয় বা দুই নামেই ডাকা হয়,কিন্তুু ফেনীর সোনাগাজী উপজেলাতে এমন একজন ব্যক্তির ভিন্ন নামের সন্ধান পাওয়া গেছে। যাকে মানুষ কাগজে কলমে বিভিন্ন নামেই চিনেন বা ডাকেন!</div>তিনি হলেন মোঃ হায়দার, আলী হায়দার? ইস্কান্দার হায়দার? রনি হায়দার ? মুলত কে এই হায়দার? কেন এতোগুলো নামেই বা তিনি পরিচিত? হে এই নামগুলোর পিছনে লুকিয়ে আছে অজানা এক রহস্য ?<br>এই হায়দার এক সময় সোনাগাজীর পুরো উপজেলায় and nbsp; ঘুরিয়ে জীবনধারণ করতেন । তিনিই হঠাৎ শুরু করলেন কথিত সিলভার মাল্টিপারপাাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ নামে অসহায় নিরিহ মানুষ ধোকা দেওয়ার একমাত্র প্রতারণার পথ। এই পথ ধরেই হায়দারের প্রতারণার যাত্রা শুরু হয়।<br>এ পর্যন্ত গল্পটা যেন সিনেমার হিরোর মতোই। কিন্তু হায়দার খলনায়কের মতো সোনাগাজী উপজেলায় সহজসরল মানুষদের সিলভার মাল্টিপারপাসে বিনিয়োগ করলেই দিগুণ লাভের লোভ দেখিয়ে কৌশলে টাকা আত্মসাৎ এর পরিকল্পনা হাতে নেন হায়দারসহ কয়েকজন প্রতারক। এক সময়ের সিলভার মাল্টিপারপাসের সমন্নয়ক হায়দার এখন অনেক টাকার মালিক!<br>সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়,ফেনীতে একের পর এক মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটিগুলো উধাও হয়ে যাচ্ছে। তার মধ্যে উধাও হয়ে যায় সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি ও তার সমন্বয়ক লোকজন। তথ্য অনুসন্ধানে যানা যায়, ফেনী সদর একাডেমি সড়কের মনোয়ারা প্লাজার ৩৪১ দ্বিতীয় তলায় ভাড়া রুমে ২০০৮ সালের ২ নভেম্বর মাস থেকে সমবায় অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধন নিয়ে সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির পরিচালনার কার্যক্রম শুরু করে।<br>বিনিয়োগকারী সমন্বয়ক এলাকাবাসী ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, বৃক্ষরোপণ যৌতুক বিরোধী কর্মসূচি দুস্থদের দান বৃত্তিমূলক শিক্ষা জাতীয় দিবস পালনসহ আরো অনেক আত্নসামাজিক উন্নয়নমূলক সংস্থাকে চলমান ভুয়া কার্যক্রম দেখিয়ে শুরু থেকে প্রায় ১০০ জন সদস্য নিয়ে পরিচালনা কার্যক্রম শুরু করে উধাও হয়ে যাওয়া সিলভার মাল্টিপারপাস (co-operative) সোসাইটি।<br>অনুসন্ধানে জানা যায়, সমবায় অধিদপ্তরের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা এবং উক্ত প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান নাসিরুদ্দিন আরজুর শশুর সাবেক সমবায় কর্মকর্তা সিরাজুল হকের যোগসাজশে হায়দারসহ গ্রাহকদের স্থায়ী আমানতের কোটি কোটি টাকা নিয়ে গা-ডাকা দেয় চেয়ারম্যান নাসিরুদ্দিন আরজু।<br>তারা সমবায় অধিদপ্তর থেকে কার্যক্রম পরিচালনা অনুমোদন পেয়ে শুরু করে বিনিয়োগের নামে মহাজনী নিয়মে সুধী কারবারও। আর্থিক কারবারে গতিশীলতা আনতে বিনিয়োগকারীদেরকে লোভ দেখিয়ে প্রতিমাসে প্রতি লাখে ৩০০০ টাকার অধিক লভ্যাংশ প্রদান করত এই মাল্টিপারপাস। অন্য দিকে তাদের নির্ধারিত কমিশনে অনেক কর্মী নিয়োগ দিয়েছিলো এবং দ্রুতগতিতে তাদের তৎপরতার কারণপ হঠাৎ গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়ে প্রায় ২৩০০ জন হয়ে যায়।<br>সোনাগাজী দাগনভূঞা ও ফেনী সদরে সহ মোট ৯ টি শাখা অফিস চালু করে এই সিলভার মাল্টিপারপাস। চালুকৃত নতুন শাখা অফিসে সমন্বয়কের দায়িত্ব দেওয়া হয় ৯ জন কে।<br>অফিস সহকারি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয় সাথী ও সাদিয়া নামে দুই মেয়েকে।<br>কিন্তু ২০১৪ সালের নভেম্বর মাস থেকে প্রধান অফিস সহ সকল অফিস গুলোতে তালা লাগিয়ে গা ঢাকা দেয় সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আরজু সহ-সভাপতি শিরিন আক্তার, সম্পাদক একরামুল হক সোহাগ এবং সকল সমন্বয়ক সহ অফিস সহকারীরা।<br>তার মধ্যে সোনাগাজীর অন্যতম মোঃ হায়দারও একজন । গ্রাহকরা তাদের টাকা ফেরত পেতে ঊর্ধ্বতনদের কাছে দৌড়ঝাঁপ করে ১২ বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও এখনো পযন্ত কোন আশার আলোও দেখছেনা ভুক্তভোগীরা।<br>অনুসন্ধানি সুত্রে জানা যায়, একের পর এক গ্রাহকদের গচ্ছিত কোটি কোটি টাকা নিয়ে গা- ডাকা দেয় আরো কয়েকটি মাল্টিপারপাস কো অপারেটিভ।<br>এর আগে লিবারেল কো-অপারেটিভ,লতিফপুর আদর্শ সোসাইটি, আল ইহসান মাল্টিপারপাস,উদয়ন মাল্টিপারপাস,কর্ণফুলী মাল্টিপারপাস সহ বেশ কয়েকটি সংস্থা। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিরব ভূমিকায় থাকার কারণে গ্রাহকদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে এবং দিনদিন মাল্টিপারপাসের প্রতি আস্থা হারাচ্ছে সাধারণ মানুষ।<br>সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আরজু গ্রাহকদের টাকা হাতিয়ে নিয়ে এখনো তিনি পলাতক থাকলেও তার সমন্নয়করা এখনো বিভিন্ন ভাবে লেবাস ধারণ করে চলাফেরা করছে ।<br>বর্তমানে সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির অফিসে কোন অস্তিত্বও না থাকলেও গ্রাহকদের কাছে রয়েছে টাকা বিনিয়োগের গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র । হায়দারসহ সবাই তৎকালীন সময়ে আত্মগোপনে চলে গেলেও অনেক গ্রাহকেরা বিনিয়োগের টাকা আদায় করতে তাদের বাসায় গিয়ে হানা দেয় এবং অনেকে সমবায় অধিদপ্তর বরাবরে অভিযোগ দায়ের করে।<br>সিলভার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির টাকা হাতিয়ে নেওয়া কয়েকজনের মধ্যে হায়দার ইস্কান্দার রনিও একজন। তিনি বর্তমানে সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যানের সহকারী হিসেবে কর্মরত থাকলেও অনেক গ্রাহক কে তাদের টাকা পেরত না দিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের ভয়ভীতিও দেখানোর অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। হয়রানির ভয়ে অনেকে মুখ না খুললেও এরই মধ্যে অনেক ভুক্তভোগী হায়দার ইস্কান্দার রনি সহ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়েরও প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানা যায়।<br>সরেজমিনে গিয়ে তথ্য অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, শাখা অফিস গুলোর কথিত সমন্বয়ক বর্তমানে উপজেলা চেয়ারম্যানের সহকারী সোনাগাজী কাজিরহাট শাখার সমন্বয়ক ইস্কান্দার হায়দার রনি লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়, তার মধ্যে সোনাগাজী কাজিরহাট সেনের খিল গ্রামের ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন মামুন কাজীরহাটের সমন্বয়কের মাধ্যমে চার লক্ষ টাকা, বকুল নামে একজন ভুক্তভোগী ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসের এক তারিখে মোঃ ইসকান্দার হায়দার এর মাধ্যমে এক লক্ষ টাকা,২০১২ সালে ডিসেম্বর মাসে মোঃ নুরনবী নামে মোঃ ইসকান্দার হায়দার এর মাধ্যমে ৫০০০০ টাকা, নাজমুন নাহার নামে এক ভোক্তভোগী থেকে মোঃ ইসকান্দার ওয়েদার এক লক্ষ টাকা, নুরুল আলম সোহাগ নামে এক ভুক্তভোগী থেকে এক লক্ষ টাকা, মো মোবারক হোসেন নামে এক ভুক্তভোগী থেকে এক লক্ষ টাকা, সাইফুল ইসলাম নামে বক্তারমুন্সী রাজাপুর গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে থেকে ২০১৩ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে ৫০০০০ হাজার টাকা, সোনাগাজীর কাচারি পুকুর ও মতিগঞ্জ সমন্বয়ক তৌহিদের মাধ্যমে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা, সোনাগাজীর বক্তারমুন্সী বাজার শাখার সমন্বয়ক আব্দুল্লাহর মাধ্যমে প্রায় ৬ লক্ষ টাকা, সোনাগাজী তাকিয়া বাজার শাখার সমন্বয়ক মোহাম্মদ বাবুলের মাধ্যমে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা, সোনাগাজী কুঠিরহাট বাজার শাখার সমন্বয়ক খুরশিদের প্রায় এক লক্ষ টাকা, দাগনভূঞা উপজেলার সিলোনিয়া বাজার শাখার সমন্বয়ক বাবুলের মাধ্যমে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা, ফেনী সদর একাডেমি এলাকার সমন্বয়ক হাসান এর মাধ্যমে প্রায় ১ লক্ষ টাকা, ফেনী সদর মহিপাল এলাকার সমন্বয়ক শেখ ফরিদ এর মাধ্যমে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা, অফিস সরকারি সাদিয়ার মাধ্যমে ৭ লক্ষ টাকা, অফিস সহকারি সাথী এর মাধ্যমে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা, মোহাম্মদ ইলিয়াস নামের ব্যক্তির মাধ্যমে ২০ লক্ষ টাকা, সোহাগের তিন লক্ষ টাকা,কাওসারের ৮ লক্ষ টাকা, মাহবুবের ৮ লক্ষ টাকা এভাবে প্রতারণার জাল বসিয়ে টাকা আদায় করে নিয়ে কোটি টাকা পরিণত হলে গ্রাহকের স্থায়ী আমানতি টাকা নিয়ে চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আরজুসহ পালিয়ে পালিয়ে যায় হায়দার ওরফে ইস্কান্দার হায়দার রনিও।<br>সমবায় অফিস সূত্রে জানা যায়, গ্রাহকদের স্থায়ী আমানতের টাকা ফেরত পেতে সমন্বয়ক দের মাধ্যমে প্রায় চল্লিশটি স্টাম্প সহ লিখিত অভিযোগ করেছে, জেলা সমবায় কর্মকর্তা ফেনী সদর উপজেলা সহকারী পরিদর্শক কর্মকর্তা মোঃ মুজিবুল হক কে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ প্রদান করেন ফেনী সদর উপজেলার সহকারি পরিদর্শক কর্মকর্তা মজিবুল হক গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ সালে একটি তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলও করেন জেলা সমবায় কর্মকর্তা বরাবরে,এতে উল্লেখ্য যে সিলভার মাল্টিপারপাস co-operative সোসাইটির চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আরজু সহ-সভাপতি শিরিন আক্তার ও সম্পাদক আকরামুল হক সোহাগ অফিসে তালা লাগিয়ে প্রায় এক কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়,<br>তবে সিলভার মাল্টিপারপাস co-operative সোসাইটির চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আরজু বিশ্বস্ত সিনিয়র সমন্নয়ক হায়দার ওরফে ইস্কান্দার হায়দার রনির কাছ থেকে গ্রাহকদের টাকা পরিশোধ করার and nbsp; ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি হাজারিকা প্রতিদিন কে জানান, তার মাধ্যমে সংগ্রহ করা গ্রাহকের আমানত ফেরত দিতে তিনি আরো ১০ বছর সময় দাবী করেছেন।<br>তবে ভুক্তভোগীদের আরেকটি সুত্র জানায় তারা হায়দারের দেওয়া আর কোনো সময় বা প্রতারণার ফাঁদে পা নাদিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে।<br>পর্ব-১..... and nbsp; ( দ্বিতীয় পর্বে চলবে সাইন জালিয়াতি)</body></HTML> 2022-11-06 19:27:16 1970-01-01 00:00:00 ট্রেনে পুত্র সন্তান জন্ম দিলেন এক গৃহবধু http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114741 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667665592_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667665592_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥<br>ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নোয়াখালীগামী আন্তঃনগর উপকুল এক্সপ্রেস ট্রেনে এক যাত্রী একটি পুত্র সন্তান জন্ম দিয়েছেন। শনিবার রাতে ট্রেনের ভেতরেই ওই সন্তানের জন্ম হয়। <br>রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, নরসিংদী জেলার সদর উপজেলার বালুসাইর গ্রামের এরশাদের অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী তানিয়া বেগমকে নিয়ে তার বাবা গোলাম মাওলা ও মা লক্ষীপুর জেলার রামগতি বাবার বাড়িতে আন্তঃনগর উপকুল এক্সপ্রেস ট্রেনে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। আখাউড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশন ছেড়ে আসলে ওই গৃহবধুর প্রসব ব‍্যাথা দেখা দিলে ট্রেনে কর্তব্যরত জুনিয়র রেলওয়ে পরিদর্শক (জেআরআই) ড. আমিনুল ইসলাম বিষয়টি জানতে পেরে চট্টগ্রাম রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং ওই ট্রেনে থাকা একজন চিকিৎসকের সহায়তা নেন। ততক্ষণে ওই গৃহবধু ট্রেনের মধ‍্যেই একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। <br>ট্রেনটি কুমিল্লা স্টেশন পৌঁছলে জেআরআই আমিনুল ইসলাম উন্নত চিকিৎসার জন‍্য নবজাতকসহ গৃহবধুকে কুমিল্লার একটি প্রাইভেট হসপিটালে প্রেরণ করেন। <br>বিষয়টি নিশ্চিত করে লাকসাম রেলওয়ে জংশন স্টেশনের জুনিয়র রেলওয়ে পরিদর্শক (জেআরআই) ড. আমিনুল ইসলাম বলেন, নরসিংদী থেকে আসা উপকুল এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রী তানিয়া বেগম ও নবজাতক সুস্থ আছেন বলে চিকিৎসকের কাছ থেকে খবর নিয়েছি।<br><br></body></HTML> 2022-11-05 22:26:11 1970-01-01 00:00:00 সোনাগাজীতে মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই বন্ধের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114740 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667648441_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667648441_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥</span><br>সোনাগাজীতে অনলাইনে আবেদন কারী মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম দীর্ঘ ৬ বছর বন্ধ রাখার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ নভেম্বর শনিবার সকাল ১১টায় সোনাগাজী পৌরসভার জিরো পয়েন্টে শত শত মুক্তিযোদ্ধাদের উপস্থিতিতে মুক্তিযোদ্ধারা এ কর্মসূচি পালন করেন। ‘মুক্তিযুদ্ধের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার’ এই স্লোগান নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- সোনাগাজী উপজেলা অনলাইন আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম ও সাধারণ সম্পাদক মো: হাবিবুল্লাহসহ মুক্তিযোদ্ধারা।<br><br>সোনাগাজী উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ৫৯২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির জন্য মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন। <br>যাচাই-বাছাই কমিটি গঠন নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বিতর্ক আসায় এর আগে দু’বার এ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। সর্বশেষ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে গত ২৫ মে ২০২২ ফেনী জেলা প্রশাসকের এক আদেশের আলোকে সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ১০ থেকে ২২ আগস্ট ২০২২ পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে যাচাই-বাছাই কার্যক্রমের সময় ঠিক করে দেন। কমিটিতে যথোপযুক্ত নয় বলে দাবি করে এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য লেফট্যানেন্ট জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী ফেনী জেলা প্রশাসকের কাছে ডিও পত্র দিলে ৮ আগস্ট মন্ত্রণালয়ের অনুমদিত কমিটি অনিবার্য কারণ দেখিয়ে এ কার্যক্রম স্থগিত করে। এ নিয়ে তৃতীয়বার এ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়।<br><br>গত ৬ বছর এ কার্যক্রম স্থগিত থাকায় সোনাগাজীর বীর মুক্তিযোদ্ধারা রাষ্ট্রীয় সকল সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। অনেকে চিকিৎসার অভাবে যথাযথ সম্মান না পেয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেও আজও তাদের অধিকার ফিরে পাননি। যারা বেচে আছেন তারা এমপির বাড়ি, স্থানীয় কমান্ডারদের বাড়ি আর সরকারি অফিসের বারান্দায় বারান্দায় ঘুরছেন অধিকার ফিরে পাওয়ার আশায়।<br><br>ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য (অব:) লেঃ জেঃ মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীর রাজনৈতিক উপদেষ্ঠা ছোট ভাই অধ্যাপক সাইফু উদ্দিন হরুন বলেন, বিভিন্ন সময় এ কার্যক্রম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক কমিটি গঠন করে সামাধান করতে চাইলে একটি কুচক্রী মহল কমিটি গঠন নিয়ে অসৎ উদ্দেশ্যে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে বারবার বাধাগ্রস্ত করছে। যার কারণে বিষয়টি সমাধানে দেরি হচ্ছে। তাতে ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিষয়টি যত দ্রুত সামাধানের চেষ্টা করা হবে।<br><br>উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনজুরুল হক জানান, সোনাগাজীতে দীর্ঘ দিন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাচাই কার্যক্রম সমাপ্ত না হওয়ায় অনেক ভুক্তভোগী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্বার্থে বিষয়টি দ্রুত সামাধান হওয়া উচিত। সোনাগাজী উপজেলা অনলাইন আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম বলেন, দ্রুত যাচাই বাছাই কার্যক্রম শুরু না হলে মুক্তিযোদ্ধারা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধসহ বৃহত্তর আন্দোলনে যাবেন বলেও হুশিয়ারি দিয়েছেন।</body></HTML> 2022-11-05 17:39:21 1970-01-01 00:00:00 ইমরান খানকে মেরে ফেলারই চেষ্টা করেছিলাম http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114739 http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667486461_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/11/03/1667486461_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥<br>বন্দুকহামলায় অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) দেশটির পূর্বাঞ্চলে একটি লংমার্চে নেতৃত্ব দেওয়ার সময় ইমরান খানের গাড়িবহরে গুলির ঘটনা ঘটে। এসময় পায়ে গুলিবিদ্ধ হন পিটিআই প্রধান। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।<br><br>আহত ইমরানকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সন্দেহভাজন হামলাকারীকেও সঙ্গে সঙ্গে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি এরই মধ্যে ইমরান খানকে হত্যাচেষ্টার কথা স্বীকারও করেছেন। গ্রেফতার ব্যক্তি বলছেন, ইমরান খান জনগণকে বিভ্রান্ত করছিলেন। সেটি সহ্য করতে না পেরেই তিনি পিটিআই প্রধানকে হত্যার চেষ্টা করেন।<br>তিনি বলেন, আমি তাকে হত্যা করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। আমি শুধু ইমরান খানকেই মারতে চেয়েছিলাম, আর কাউকে নয়।<br><br>ওই যুবক জানান, ইমরান খান লাহোর ত্যাগের পর থেকেই তাকে হত্যার পরিকল্পনা করছিলেন তিনি। এই হামলায় আর কেউ জড়িত কি না জানতে চাইলে হামলাকারী বলেন, আমার সঙ্গে আর কেউ নেই। আমি একা।<br><br>পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও নিউজের খবরে বলা হয়েছে, ইসলামাবাদ অভিমুখে পিটিআই’র লংমার্চের সপ্তম দিনে গুজরানওয়ালার আল্লাহওয়ালা চকে ইমরান খানকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। হামলায় তিনি ছাড়া আরও চার থেকে পাঁচজন পিটিআই নেতা আহত হয়েছেন, তাদের মধ্যে ফয়সাল জাভেদ অন্যতম।<br>ইমরান ইসমাইল নামে দলটির এক নেতা জানিয়েছেন, পিটিআই চেয়ারম্যানের পায়ে তিন থেকে চারবার গুলি করা হয়েছে।<br><br>স্থানীয় বোল টিভির সঙ্গে আলাপকালে ইসমাইল জানান, হামলার সময় তিনি ইমরান খানের পাশেই ছিলেন। হামলাকারী একটি অস্ত্র হাতে সোজা কন্টেইনারের সামনে চলে আসে।<br><br>সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, অস্ত্র উঁচিয়ে ইমরান খানের দিকে গুলি করার পরপরই হামলাকারীকে ধরার চেষ্টা করেন এক যুবক। এসময় হামলাকারী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।<br><br>আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, ইমরান খানকে বহনকারী গাড়িবহর ধীরে ধীরে এগিয়ে আসার সময় হঠাৎ গুলি চালানো হয়। সঙ্গে সঙ্গে বসে পড়েন তিনি।<br><br>তবে ভাগ্য ভালো পিটিআই প্রধানের। বড় ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।</body></HTML> 2022-11-03 20:34:34 1970-01-01 00:00:00 ৩০০ কোটি টাকা লটারি জয়ের খবর স্ত্রীর কাছে গোপন করলেন স্বামী http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114738 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667401643_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667401643_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">হাজারিকা অনলাইন ডেস্ক <br>লটারিতে ৩০০ কোটি টাকা জয়ের খবর স্ত্রীর কাছে গোপন করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন এক যুবক। গত সপ্তাহে দক্ষিণী চীনের নানিং শহরে এ ঘটনা ঘটে।<br>ইয়াহু ডটকম এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ২১ অক্টোবর রাতে ওই যুবক জানতে পারেন লটারি জিতেছেন তিনি। এ খবর জানার পর ওই রাতে আর ঘুমাতে পারেননি তিনি। ২৪ অক্টোবর হলুদ রঙের কার্টুন স্যুট পরে লটারির পুরস্কার গ্রহণের জন্য নানিং শহরের গুয়াংজি ওয়েলফেয়ার লটারি বিতরণ কেন্দ্রে হাজির হন এবং এই পোশাকে নিজেকে আড়ালে রেখে পুরস্কার গ্রহণ করেন তিনি।<br>ওই যুবক তার নিজের নামও প্রকাশ করেনি। পাশাপাশি এ-ও জানান, লটারি বিজয়ের খবরটি তার স্ত্রী বা পরিবারের কাছেও প্রকাশ করেননি। চীনের সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মনিংকে ওই যুবক বলেন—‘লটারি বিজয়ের খবরটি আমার স্ত্রী কিংবা সন্তানদের জানাইনি।’<br>কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘আমি আমার স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে উদ্বিগ্ন। কারণ এ খবর জানালে, তারা অন্য মানুষের চেয়ে নিজেদেরকে বড় ভাবতে শুরু করতে পারে। এজন্য ভবিষ্যতে পড়াশোনা বা কঠোর পরিশ্রম করবে না তারা।’<br><br>খেলাধুলার উন্নয়নে চীন সরকার নিয়মিত একটি লটারির আয়োজন করে থাকে। তারই টিকিট কেটেছিলেন ওই যুবক। তাতেই ২২ কোটি ইউয়ান জিতেন তিনি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা দাঁড়ায় ৩০৬ কোটি ৯৮ লাখ ৮৯ হাজার ২৩৬ টাকা।<br><br>লটারি জয়ের পুরো অর্থ নিজে খরচ করছেন না ওই যুবক। বরং একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৭ কোটি টাকা দান করেছেন। আর সরকারকে প্রায় ৬০ কোটি টাকা কর দিতে হবে। আর বাকি টাকা নিজের ঘরে নিতে পারবেন তিনি। <br></body></HTML> 2022-11-02 20:58:49 1970-01-01 00:00:00 ইউক্রেনে প্রবেশ করেছে মার্কিন সেনারা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114737 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667401039_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667401039_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">আন্তর্জাতিক ডেস্ক</span><br>ইউক্রেনে প্রবেশ করেছে আমেরিকান সৈন্যরা। তারা দেশটিতে ন্যাটোর অস্ত্র সরবরাহ পর্যবেক্ষণ করছে বলে পেন্টাগনের এক কর্মকর্তা সোমবার বেশ কয়েকটি মার্কিন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন। তবে কতজন সেনা প্রবেশ করেছে বা তারা কোথায় অবস্থান করছে তা স্পষ্ট নয়। অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস, এনবিসি নিউজ এবং পেন্টাগন প্রেস পুলের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে আলাপ কালে কর্মকর্তা বলেছেন, সেনাদলের নেতৃত্বে রয়েছেন কিয়েভে মার্কিন প্রতিরক্ষা অ্যাটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গ্যারিক হারমন।<br><br>কর্মকর্তা সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘এর মধ্যে বেশ কয়েকটি পরিদর্শন হয়েছে। তবে সেগুলো কোথায় হয়েছে তা প্রকাশ না করে তিনি বলেন, চেকগুলি ‘ফ্রন্ট লাইনের কাছাকাছি’ হচ্ছে না, তবে নিরাপত্তা পরিস্থিতি অনুযায়ী যেখানে দরকার সেখানেই হয়েছে।’ রাশিয়া ফেব্রুয়ারিতে তার সামরিক অভিযান শুরু করার আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনে তার অস্ত্রের চালান পরিদর্শন করেছিল। তবে যুদ্ধ শুরু হওয়ার কয়েক দিন আগে তারা কর্মীদের ইউক্রেন থেকে সরিয়ে নিয়েছিল। কতজন সৈন্য ফিরেছে বা কখন চেক পুনরায় শুরু হয়েছে তা স্পষ্ট নয়।<br><br>ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্ট গত সপ্তাহে ঘোষণা করেছিল, তারা ইউক্রেন সরকারকে নিরাপত্তা সহায়তা প্রদানের জন্য মার্কিন সেনা বরাদ্দ দিবে। যদিও এই কর্মীদের সামরিক পদ থেকে নেওয়া হবে কিনা সে বিষয় উল্লেখ করা হয়নি। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার উদ্ধৃতি দিয়ে মিডিয়া রিপোর্টের পর এই পরিকল্পনা ঘোষণা করা হয়, ওয়াশিংটন ইউক্রেনে যে অস্ত্র পাঠায় তা খুঁজে বের করতে পারেনি।<br><br>একটি গোয়েন্দা সূত্র এপ্রিল মাসে সিএনএনকে বলেছিল, অস্ত্রগুলি ইউক্রেনে প্রবেশ করার পর "একটি বড় কৃষ্ণ গহ্বরে’ গায়েব হয়ে যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পেন্টাগন কর্মকর্তা সাংবাদিকদের বলেছেন, কিয়েভ ‘স্বচ্ছ’ অবস্থান বজায় রেখেছে এবং এখন পর্যন্ত পরিদর্শকদের সঙ্গে সহযোগিতা করেছে।<br>আমেরিকানরা নিজেদের ইচ্ছায় ইউক্রেনে যুদ্ধ করা এবং মারা যাওয়ার পর ওয়াশিংটন স্বীকার করেছে যে তাদের সেনারা যুদ্ধক্ষেত্রে ছিল।<br>রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার ন্যাটো মিত্রদের সংঘাতে জড়ানোর বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন এবং ঘোষণার আগেও তিনি বলেছিলেন, ক্রেমলিন নিজেকে ইউক্রেনে ‘পুরো পশ্চিমা সামরিক মেশিন’ এর সঙ্গে লড়াই করছে বলে মনে করে।</body></HTML> 2022-11-02 20:56:41 1970-01-01 00:00:00 ই-অরেঞ্জের অ্যাকাউন্টে অস্বাভাবিক লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114736 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400873_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400873_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে অস্বাভাবিক লেনদেনের প্রমাণ পেয়েছে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। বুধবার (২ নভেম্বর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে সংস্থাটি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রাথমিক পর্যায়ে ই-অরেঞ্জ.শপ ও অরেঞ্জ বাংলাদেশের মালিকানায় ছিলেন সোনিয়া মেহজাবিন। কিন্তু পরে তা পুলিশ কর্মকর্তা (বরখাস্ত) শেখ সোহেল রানার স্ত্রী নাজনীন নাহার বিথির নামে হস্তান্তর করা হয়। সন্দেহভাজন প্রতিষ্ঠানগুলোর নামে অল্প সময়ের ব্যবধানে ১৩টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলে লেনদেন করা হয়েছে। এসব অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট ২ হাজার ২২১.৪২ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ লেনদেন হয়েছে ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের জুলাই পর্যন্ত সময়ে।<br><br>এছাড়া সোনিয়া মেহজাবিন ও তার স্বামী মাসুকুর রহমানের নামে সর্বমোট ২৪টি অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে লেনদেন করা হয়েছে। এসব অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে সন্দেহভাজন দুই ব্যক্তি প্রায় ১২০ কোটি টাকার লেনদেন সম্পন্ন করেছেন। এতে আরও বলা হয়, গ্রাহকদের থেকে অগ্রিম টাকা নিয়ে পণ্য সরবরাহ না করে তারা সেই টাকা ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তর, নগদে উত্তোলন ও ব্যক্তিগত স্থায়ী সম্পদ ক্রয় করেছেন। যা প্রতারণার শামিল।<br><br>এর আগে, গত ৭ এপ্রিল ই-অরেঞ্জের পাচার হওয়া অর্থ ফেরত এনে ভুক্তভোগীদের মধ্যে বণ্টন করার নির্দেশ কেন দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে অর্থ পাচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়া বিএফআইইউকে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছিল।</body></HTML> 2022-11-02 20:54:01 1970-01-01 00:00:00 আখাউড়া মেয়রের অবৈধ সম্পদের তদন্তে দুদক http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114735 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400634_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400634_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভার মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজলের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া অবৈধ সম্পদের অভিযোগের তদন্তে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। জানা যায়, মেয়রের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ৭ মার্চ, ২০১৯ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ও ২০২০ সালের ২৫ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশন অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ নানা বিষয়ে অভিযোগ তোলা হয়।<br><br>এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুদকের পক্ষ থেকে ব্যাংকে চিঠি দিয়ে তাকজিল খলিফা ও তার স্ত্রী তানিয়া আক্তারের আর্থিক বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে।<br>গত ২২ আগস্ট দুদকের জেলা সমন্বিত কার্যালয়, কুমিল্লার সহকারী পরিচালক রাফী মো. নাজমুস সাদাৎ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, তাকজিল খলিফার বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা নিজ পরিবারের সদস্যদের নামে লিজ ও দলিল সৃজন, নদীতে বেআইনিভাবে ড্রেজার দিয়ে বালি উত্তোলন, রাধানগর গ্রামে আড়াই কোটি টাকার বাড়ি নির্মাণ, ভাইয়ের নামে কোটি টাকার বাড়ি নির্মাণ, ঢাকায় ফ্ল্যাট ক্রয়, রেলওয়ের জায়গা আত্মসাতসহ বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগের তদন্তে নামা হয়েছে।<br><br>দুদকের জেলা সমন্বিত কার্যালয়, কুমিল্লার সহকারী পরিচালক রাফী মো. নাজমুস সাদাৎ বলেন, ‘তদন্ত কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শেষ হওয়ার আগে কিছু বলা যাবে না।’ এ বিষয়ে আখাউড়া পৌরসভার মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল বলেন, ‘দুদক আমার বিষয়ে তদন্ত করছে কি না, জানা নেই।’ <br></body></HTML> 2022-11-02 20:50:10 1970-01-01 00:00:00 লড়াই করে ৫ রানে হারলো বাংলাদেশ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114734 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400535_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400535_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ক্রীড়া ডেস্ক ॥</span><br>লড়াই করে মাত্র ৫ রানে হারলো বাংলাদেশ। তীরে এসে আবারও তরী ডুবলো। টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ভারত ১৮৪ রান করে। রান তাড়ায় নেমে লিটনের ঝড়ো ফিফটিতে বাংলাদেশ দারুণ শুরু করে। ৭ ওভারে ৬৬ রান তোলার পর আসে বৃষ্টি। বৃষ্টি আইনে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬ ওভারে ১৫১। ৫৪ বলে ৮৫। হাতে ১০ উইকেট থাকলেও নিতে পারেনি বাংলাদেশ। বৃষ্টি শেষে লিটনের রান আউটের পর থেকেই এলোমেলো বাংলাদেশের ব্যাটিং। মাত্র ৯ রানে হারায় ৪ উইকেট।<br><br>শেষ দিকে নুরুল হাসান সোহান থাকলেও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বল ডট দিয়ে কঠিন করে তোলেন। শেষ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ২০। বাংলাদেশ নেয় ১৪ রান। মাত্র ২৭ বলে সর্বোচ্চ ৬০ রান করেন লিটন। সোহান ১৪ বলে ২৫ ও তাসকিন ৭ বলে ১৩ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন।এই জয়ে গ্রুপ-২ থেকে সেমিফাইনাল একপ্রকার নিশ্চিত করলো ভারত। ৪ ম্যাচের তিনটিতে জিতে ৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে তারা অবস্থান নিয়েছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। ৩ ম্যাচ থেকে ৫ পয়েন্ট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা আছে দ্বিতীয় স্থানে। আর ৪ ম্যাচ থেকে ৪ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশ আছে তৃতীয় স্থানে।<div><br></div><div><span style="font-weight: bold;">সংক্ষিপ্ত স্কোর:</span><br>ভারত: ২০ ওভারে ১৮৪/৬<br>বাংলাদেশ: ১৬ ওভারে ১৪৫/৬<br>ফল: ভারত বৃষ্টি আইনে ৫ রানে জয়ী।<br>ম্যাচসেরা: বিরাট কোহলি।<br> </div></body></HTML> 2022-11-02 20:47:09 1970-01-01 00:00:00 নাঙ্গলকোটে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় যুবকের উপর হামলা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114733 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400303_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667400303_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥</span><br>কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে মাদক সেবনে বাধা প্রদান করায় শাহাদাত হোসেন মজুমদার নামে স্থানীয় সচেতন এক যুবকের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এলাকার চিহ্নিত বখাটে ও মাদকসেবী নেছার উদ্দীন। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি শাহাদাত হোসেন মজুমদার নাঙ্গলকোট থানায় নেছার এর উদ্দীন নামে এক মাদকসেবীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।<br> and nbsp;<br>অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের মৌলভী হাশেমের ছেলে নেছার উদ্দীন দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক সেবনসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকায় একই এলাকার আব্দুল বারী মজুমদারের ছেলে শাহাদাত হোসেন মজুমদার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদেরকে সাথে নিয়ে তাকে বাধা প্রদান করে এবং সংশোধন হয়ে যেতে বলে। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শরীফপুর জামে মসজিদের সামনে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী লাঠিসোটা নিয়ে শাহাদাত হোসেন এর উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে মারাত্মকভাবে আহত করে। পরে শাহাদাত এর আত্ম-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে অভিযুক্ত নেছার উদ্দীন দৌড়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ সময় স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় শাহাদাতকে উদ্ধার করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় এবং চিকিৎসা প্রদান করে। পরে ভুক্তভোগী শাহাদাত হোসেন নাঙ্গলকোট থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘটনার বিশদ তদন্ত করছে বলে জানা গেছে।<br><br>এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফারুক হোসেন বলেন, 'ভুক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। মাদকসহ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে থানা পুলিশ সর্বদা সজাগ রয়েছে'।</body></HTML> 2022-11-02 20:44:26 1970-01-01 00:00:00 সোনাগাজীতে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জুয়েলারি দোকানের স্বর্ণালংকার লুট! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114732 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233689_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233689_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥<br>সোনাগাজীতে দিন দুপুরে মালিককে কুপিয়ে জুয়েলারি দোকানে লুটপাট চালায় অজ্ঞাত ডাকাতদল। ঘটনাটি রোববার দুপুরে উপজেলার চরছান্দিয়া ইউনিয়নের জমাদার বাজারের অর্জুন জুয়েলারি নামক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঘটে। এসময় ডাকাতরা মালিক অর্জুন ভাদুড়িকে কুপিয়ে গুরতর জখম করেন। লুটপাট শেষে ককটেল ফাটিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্প্রিন্টারে লেদু মিয়া নামের স্থানীয় ব্যক্তি আহত হয়েছে। <br>স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার সময় দুপুরে বাজারের অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ ছিলো এবং বাজারে জনসমাগম ছিলোনা। এ সুযোগে দুইটি মোটর বাইকে হেলমেটপরা ৬ ব্যক্তি বাজারে এসে মসজিদ রোড় হয়ে অর্জন জুয়েলারীতে প্রবেশ করেন মালিক অর্জুন ভাদুড়িকে কুপিয়ে গুরতর জখম করেন। পরে তারা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে রক্ষিত স্বর্ণলংকার লুটে নেয়। এসময় অর্জুনের আত্মচিৎকারে পাশের দোকানে অবস্থানরত লেদু মিয়া এগিয়ে গেলে ডাকাতদল তার দিকে ককটেল নিক্ষেপ করলে সে আহত হয়। ককটেলে আওয়াজে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে ডাকাত দল পুনরায় কয়েকটি ককটেল নিক্ষেপ করে দাসের হাটের দিকে পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স¦াস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন।<br>স্থানীয় ফয়সাল বলেন, প্রথম ককটেলে আওয়াজ শুনে আমরা ঘটনাস্থলের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে ডাকাতদল ফের ককটেলের বিস্ফোরন ঘটিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় আমরা তাদের ধাওয়া করি। পরে আমিসহ অপর এক ব্যাক্তি মোটর বাইকে তাদের পিছু পিছু যায়। দাশেরহাটের পৌঁছলে ডাকাতদল আমাদের ধাওয়া করলে আমরা সটকে পড়ি। পরে তারা দরগারহাট সড়ক হয়ে মঙ্গলকান্দির দিকে পালিয়ে যায়।<br>আহত অর্জুন ভাদুড়ির ভাতিজা মানিক ভাদুড়ি জানায় তা চাচার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়াতে তাকে চিকিৎসার জন্য চমেকে ভর্তি করা হয়েছে। চাচা অচেতন থাকায় নগদ কত টাকার স্বর্ণলংকার লুট হয়েছে জানাতে পারেনি।<br>লুটের খবর পেয়ে ফেনীর পুলিশ সুপার জাকির হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলেন এবং এসময় সোনাগাজী মডেল থানার ওসি খালেদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।<br>সোনাগাজী মডেল থানার ওসি জানায়, ঘটনাস্থল থেকে আলমত হিসেবে একটি বড় চোরা উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্তদের শনাক্ত করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে। আহত ব্যবসায়ীর জবানবন্ধি পেলে ঘটনার বিষয়ে আরো তথ্য জেনে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।<br><br><br></body></HTML> 2022-10-31 22:26:34 1970-01-01 00:00:00 লাকসামে সনি-স্মার্ট শো-রুমের উদ্বোধন http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114731 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233474_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233474_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥<br>ইলেকট্রনিক পণ‍্যের বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান সনি-স্মার্ট শো-রুমের উদ্বোধন করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে লাকসাম বাইপাস সড়কের পাশে এইচ,কে টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায় ফিতা কেটে শো-রুমের শুভ উদ্বোধন করেন, লাকসাম পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফার ইয়াসমিন চৌধুরী। সনি-স্মার্টের পরিবেশক ও স্মার্ট আইসিটি ওয়ার্ল্ডের ব‍্যবস্থাপনা পরিচালক ওমর ফারুকের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্মার্ট টেকনোলজি বিডি লিমিটেডের ব‍্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ জহিরুল ইসলাম, জেনারেল ম‍্যানেজার সরওয়ার জাহান চৌধুরী, ডেপুটি জেনারেল ম‍্যানেজার আজাদ রহমান, কুমিল্লা জোনের জোনাল ইনচার্জ শেখ মোঃ শরিফ, প‍্যাসিফিক কনজ‍্যুমার ফুডস লিমিটেড ও গ্রামীণফোন টেলি কমিনিকেশন লিমিটেডের পরিবেশক মাসুম টেলিকমের পরিচালক শাহাদাত হোসেন আলী মুরাদসহ লাকসামের বিভিন্ন ব‍্যবসায়ী।</body></HTML> 2022-10-31 22:24:18 1970-01-01 00:00:00 নাঙ্গলকোটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাড়ির জায়গা দখলের অভিযোগ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114730 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233421_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/31/1667233421_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধ ॥<br>আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে রায়কোটে দক্ষিণ ইউপির and nbsp; শ্যামেরখিল গ্রামে জে.আই. ইসলামিক সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির নাম দিয়ে খোদেজা বেগম নামের এক বৃদ্ধার বাড়ির জায়গা দখল করার অভিযোগ উঠেছে আদম ব্যবসায়ী লোকমান শাহ বিরুদ্ধে। <br>জায়গা উদ্ধারের জন্য খোদেজা বেগম পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন ধারে ধারে ঘুড়িয়ে ভেড়াচ্ছেন। and nbsp;<br>অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের শ্যামিরখিল গ্রামের আদম ব্যবসায়ী লোকমান শাহ ৩২ শকত জায়গার ওপর জে.আই. ইসলামিক সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি নামক একটি কারিগরি কলেজ স্থাপন করেন। যার ১৫ শতক জায়গা মালিক হলেন খোদেজা বেগম। তার অংশে সে বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। এদিকে প্রতিষ্ঠানটির শুরু থেকে নেই কোন প্রতিষ্ঠানিক শিকার কার্যক্রম। যা কাগজে কলমে সীমাবদ্ধ। দীর্ঘদিন ধরে ভূমি জটিলতায়ও রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এ নিয়ে লোকমান শাহ আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালতে নাঙ্গলকোট থানাকে তদন্তের নির্দেশ দেন। <br>আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী উভয় পক্ষকে and nbsp; স্থিতি বজায় রাখাতে নাঙ্গলকোট থানার উপ-পরিদর্শক আবুল খায়ের উভয়কে নোটিশ প্রদান করেন। <br>আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গত কয়েক দিন থেকে লোকমান শাহর লোকজন দিয়ে বাড়িটি দখল নিতে দফায় দফায় টিনসেডের বেড়া ভাংচুর করে করে। <br>ভুক্তভোগী খোদেজা বেগম বলেন, ৩২ শতক জায়গার মধ্যে খোদেজা বেগম ১৫ শতক জায়গার মালিক। তার অংশে সে বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। লোকমান শাহ ভুয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেখিয়ে তার জায়গা জোরপূর্বক দখল চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনি আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাড়ির বেড়া ভাংচুর করে। ন্যায় বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। <br>এ বিষয়ে অভিযুক্ত লোকমান শাহ ঢাকায় থাকেন। তার মুঠো ফোনে বার বার কল দিও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।<br>নাঙ্গলকোট থানার ওসি মোঃ ফারুক হোসেন বলেন, আদালতের আদেশ অনুযায়ী উভয়পক্ষকে স্থিতি বজায় রাখতে নোটিশ প্রদান করি। শীগ্রই আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।</body></HTML> 2022-10-31 22:20:11 1970-01-01 00:00:00 স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ পেলো সোনাগাজীর মুক্তিযোদ্ধারা! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114729 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/19/1666281585_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/19/1666281585_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left"> and nbsp;ফেনী প্রতিনিধি ॥</span><br>সারাদেশের ন্যায় এবার সোনাগাজীতেও ৫৮২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবার মুক্তিযোদ্ধা স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ পত্র পেলেন।<br>বৃহস্পতিবার ২০ অক্টোবর সকালে সোনাগাজী উপজেলার নির্বাহী অফিসার এস.এম মঞ্জুরুল হক এর সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ তাদের কে বিতরণ করা হয়।<br><br><br>বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের হাতে মুক্তিযোদ্ধা স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস.এম মনজুরুল হক।<br>স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, সোনাগাজী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নাছির উদ্দিন, ডিপুটি কমান্ডার মো. ইসমাঈল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হারাধন চন্দ্র মজুমদার সহ উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধা সহ পরিবারের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।<br><br><br></body></HTML> 2022-10-20 21:59:13 1970-01-01 00:00:00 কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এর বিরুদ্ধে অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ এলাকাবাসীর http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114728 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/16/1666013233_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/16/1666013233_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">জয় আরিফ </span><br>নেত্রকোণা জেলার পূর্বধলা উপজেলার অন্তর্গত কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিন খানের বিরুদ্ধে অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্য, দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম মোহাম্মদ ফজলুল হক সাহেব এর পুত্র জনাব কামরুল হাসান জানান, উনার পিতা মরহুম ফজলুল হক সাহেব বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করার জন্য নিজের পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে ১.২০ একর জমি দান করেন শুধু তাই নয় অনেক শ্রম, ত্যাগ, তিতিক্ষার বিনিময় বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। অথচ আজকে একজন প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়টিকে লুটেপুটে খাচ্ছেন এবং অবৈধ নিয়োগ বাণিজ্যের মাধ্যমে কাঙ্ক্ষিত মানসম্মত শিক্ষক নিয়োগ না দিয়ে অবৈধ ভাবে অযোগ্য লোকদের নিয়োগ দিয়ে বিদ্যালয়ের পড়াশোনার মান ও সুনাম ক্ষুন্ন and nbsp; করে চলেছেন। কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম ফজলুল হক সাহেব মৃত্যুবরণ করেন ৩০-১২-২০১৪ সালে । অথচ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিন খান ফজলুল হক সাহেব কে জীবিত দেখিয়ে এবং ভুয়া পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি তৈরি করে ফজলুল হক সাহেবের মৃত্যুর তিন মাস পরেও জীবিত দেখিয়ে উনার স্বাক্ষর জাল করে ৩১-০৩-২০১৫ সালে প্রথমসভা এবং ২৫-৪-২০১৫ সালে দ্বিতীয় সভা এবং ০২-০৬-২০১৫ সালে বোর্ড সভা দেখিয়ে ২০/৬/২০১৫ ইং তারিখে নিয়োগ বোর্ডের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ও অনুমোদন দেখিয়ে মোস্তাক আহমেদ কে কৃষি বিষয়ে সহকারী শিক্ষক এবং লিটন মিয়াকে কম্পিউটার পদে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পত্র প্রদান করেন ২৬-০৭-২০১৫ সালে। এভাবে একে একে মোট ৯ জনকে অবৈধভাবে নিয়োগ প্রধান করে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম ফজলুল হক সাহেব এর পুত্র কামরুল হাসান। শুধু তাই নয় বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মোঃ কফিল উদ্দিন খান স্বয়ং উনার স্ত্রী কানিজ উম্মে ফাতেমাকে ২০০৪ সালে কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই নিয়ম বহির্ভূত ভাবে সহকারী শিক্ষক থেকে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ প্রদান করেন। শুধু তাই নয় সহকারী শিক্ষক থেকে পদত্যাগ করেও ২০১৯ সাল পর্যন্ত সহকারী শিক্ষক ও সরকারি প্রধান শিক্ষক দুই পদে বেতন ভাতাদি উত্তোলন করেছেন যা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি ও সরকারি অর্থ আত্মসাৎ। এইসব দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিকার চেয়ে জনাব কামরুল হাসান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক বরাবর অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার পায় নাই বলে দৈনিক হাজারিকা প্রতিদিন কে জানান । আর এইসব বিষয়ে জানতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিন খান কে উনার ০১৭১৩৫৪৯৪০৭ এই নাম্বারে ফোন করা হলে উনি বাইকে আছে একটু পরে ফোন করবে বলে আর ফোন করে নাই। এবং পরবর্তীতে উনাকে একাধিকবার ফোন করলেও উনি আমাদের ফোন ধরে নাই ।</body></HTML> 2022-10-17 19:26:47 1970-01-01 00:00:00 নদী পরিদর্শনে এসে গুলিবিদ্ধ মেয়র খোকন, রিপন চেয়ারম্যানসহ ২০ জনের নামে মামলা, গ্রেফতার-২ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114727 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/06/1665838130_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/06/1665838130_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি and nbsp; :<br>ফেনী নদী মিরসরাই সীমানা থেকে সরকারি কাজে and nbsp; বালু তোলাকে কেন্দ্র করে বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকনসহ তিনজন গুলিবিদ্ধের ঘটনায় সোনাগাজী মডেল থানা মামলা হয়েছে। এতে ফেনী সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুল হক রিপন কে প্রধান আসামি করে ২০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। শনিবার (১৫ অক্টোবর) সোনাগাজী মডেল থানায় মামলাটি করেন মিজানুর রহমান ( রিয়াদ) নামের এক ব্যক্তি। হামলার ঘটনায় সোনাগাজী উপজেলা ভুমি অফিসের মুহুরি প্রজেক্টে কথিত কর্মচারী and nbsp; শাকিল ও নুর আলম নামের দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।<br><br>সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মুঃ খালেদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,ফেনী সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনকে প্রধান আসামী করে ১২জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরো ৭/৮জনসহ মোট ২০ জনের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।এ ঘটনায় দুইজন কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।<br><br><div>প্রসঙ্গত, করেরহাটে বিদ্যুৎ এর সাব-স্টেশনের জন্য সরকারি ভাবে বালু তোলাকে কেন্দ্র করে ১৪ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০ টায় মুহুরি সেচ প্রকল্প সংলগ্ন ফেনী নদীর কলমির চরের মিরসরাই এলাকার সীমানায় নৌকা যোগে বারইয়ারহাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র রেজাউল করিম খোকন,অশোক সেন, যুবলীগ নেতা সাইদ খান দুখু,আশরাফুল আলম সহ মিরসরাই সাইট পরিদর্শন নৌকা যোগে পরিদর্শন করছিলেন,এমতাবস্থায় তারা কিছু বুঝে উঠার আগেই বিতর্কিত ভাবে গুলি ছুড়ে রিপন চেয়ারম্যানের লোকজন।এতে ঘনাস্থলে মেয়র সহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়।</div><div><br></div><div> and nbsp;যদিও বা হামলার বিষয়ে রিপন চেয়ারম্যানের সম্পৃক্ততা পুরোপুরি অস্বীকার করলেও হামলায় আহতরা রিপন চেয়ারম্যানের কথা বার বার সাংবাদিকদের কাছে তার নাম বলেছেন, বর্তমানে তাদের মধ্যে, গুরুতর বারইয়ারহাট পৌর মেয়র রেজাউল করিম খোকনকে রাতে অপারেশন করে ফুসফুসে জমে থাকা রক্ত পরিস্কার করে, বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে র আইসিইউতে আছেন। হিঙ্গুলি ইউনিয়ন আওয়ামী নেতা অশোক সেনও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। and nbsp; শনিবার দিবাগত রাতে মিজানুর রহমান রিয়াদ নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে এ মামলাটি করেন।এ ঘটনায় নুর আলম ও শাকিল নামে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।<br></div><br><br> </body></HTML> 2022-10-15 18:38:53 2022-10-15 18:50:43 ফেনীতে অবৈধ বালু উত্তোলন ও নদী দখল বন্ধে অভিযান http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114726 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/10/1665497556_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/10/1665497556_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥<br> and nbsp;ফেনীতে নদীর মুহুরী প্রজেক্ট রেগুলেটর সংলগ্ন অংশে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন এবং কলমির চরে নদী দখল করে মাছ চাষ বন্ধে অভিযান পরিচালনা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও পরিবহনের দায়ে দু’টি বালু ভর্তি বড় ট্রলার জব্দ করা হয়। <br>আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মহুরি প্রজেক্ট এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করেন সোনাগাজী উপজেলা প্রশাসন। <br>অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম মনজুরুল হক, নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনিক চৌধুরী। এতে ভূমি অফিসের কর্মকর্তা এবং সোনাগাজী মডেল থানার এক দল পুলিশ সদস্য, আনসার সদস্যরা অংশ নেয়।<br><div>ইউএনও জানান, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকায় সোনাগাজীর সোনাপুর বালু মহাল।</div><div><br></div><div> and nbsp;এটি ৭ নম্বর সোনাপুর, ৬৯ নম্বর থাকখোয়াজের লামছি মৌজায় অবস্থিত। স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকায় দখলদারদের কারণে একদিকে নদী দখল হচ্ছে, অন্যদিকে বালু উত্তোলনের কারণে নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ছে। অবৈধভাবে ও অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনের কারণে অনেক জায়গায় নদীর পাড় ভেঙ্গে গেছে। বিলীন হচ্ছে কৃষকের ফসলি জমি। হুমকির মুখে বাড়িঘর ও মুহুরী প্রজেক্ট রেগুলেটর। এছাড়া নদী দখল করে মাছ চাষে নদীর স্বাভাবিক গতি হারিয়েছে। <br></div><div><br></div>ইউএনও আরো বলেন, সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকার সোনাপুর মৌজায় অনেক বেশি জায়গা জুড়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। অভিযানে বালু বহনের কাজে ব্যবহৃত দু'টি ট্রলার জব্দ করা হয়। শ্রমিক ছাড়া কাউকে না পাওয়ায় জরিমানা করা সম্ভব হয়নি। তবে ট্রলার মালিক এবং যাদের নির্দেশে বালু উত্তোলন চলছে, বৃহস্পতিবারের মধ্যে দ্রুত অফিসে দেখা করার জন্য বলা হয়েছে।<br>তিনি জানান, মুহুরী প্রজেক্টের কলমির চরে মাছ চাষের নামে নদী দখলদারদের আগামী ৭দিনের মধ্যে স্থাপনা সরিয়ে নদীর গতিপথ উন্মুক্ত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। জনস্বার্থে এই ধরণের অভিযান অব্যবহত থাকবে।</body></HTML> 2022-10-11 20:11:25 1970-01-01 00:00:00 কুমিল্লার লাকসামে আন্তঃ জেলা চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার। http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114725 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/05/1665240448_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/05/1665240448_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার চন্দনা বাজারে মেসার্স হক ট্রেডার্স নামক প্রতিষ্ঠানে আবুল খায়ের কনজিউমার প্রোডাক্ট ও সবিজ কর্পোরেশন এর ডিলারে ২৫ই সেপ্টেম্বর রাতে লাকসাম উপজেলার চন্দনা বাজার মসজিদের মুয়াজ্জিন ফজরের নামাজের আযান দিতে এসে দোকানের শাটার খোলা দেখে দোকানের মালিক মোঃ ফজলুল হক অবগত করলে, দোকানের মালিক ফজলুল হক ঘটনাটি লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূইয়াকে জানালে, ওসি তার উর্ধতন কর্মকর্তাকে অবগতি করার পর কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান ও লাকসাম সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মুহিতুল ইসলামের নির্দশে এসআই মাকসুদ কে দায়িত্ব দিলে গত ২ দিনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সংগ বদ্ধ চোর চক্রের ৬ সদস্যকে পার্শ্ববর্তী নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ ও সোনাইমুড়ী উপজেলা থেকে গ্রেফতার করে লাকসাম থানায় নিয়ে আসে।<br><br>চুরি হওয়া মালামালের মধ্যে ২ টি কফি মেশিন, ৩ হাজার টাকার গুড়া দুধ ও একটি ব্যাটারি চালিত অটো বক্স গাড়ি উদ্ধার করা হয়।<br>শনিবার দুপুরে লাকসাম থানা পুলিশের আয়োজনে একটি প্রেস ব্রিফিং করা হয়। আটককৃতরা হলেন ১। মোঃ ইলিয়াছ হোসেন প্রকাশ সোহাগ(৩৩), পিতা- মৃত বদিউজ্জামান, বেগমগঞ্জ, জেলা- নোয়াখালী, ২। মোঃ তানিম(২০), পিতা- নুরুল আমিন,থানা- বেগমগঞ্জ, জেলা- নোয়াখালী, ৩। মোঃ রাশেদ (২৪), পিতা- মৃত আব্দুস সাত্তার, বেগমগঞ্জ, থানা- সোনাইমুড়ী, জেলা- নোয়াখালী,৪। মোর্শেদ আলম(৩৯), পিতা- আবুল বাশার, থানা- চাটখীল, জেলা- নোয়াখালী, ৫। আলা উদ্দিন(২১), পিতা- দেলোয়ার হোসেন, থানা- বেগমগঞ্জ, জেলা- নোয়াখালী, ৬। আব্দুর রহিম(৪৭), পিতা- মৃত ওসমান আলী, বজরা ইউপি, থানা- সোনাইমুড়ী, জেলা- নোয়াখালী। লাকসাম থানার মামলা নং ০৩।<br><br></body></HTML> 2022-10-08 20:47:02 1970-01-01 00:00:00 নাঙ্গলকোটে উপজেলা চেয়ারম্যানের ছেলে ডিস ব্যবসায়ীকে মেরে আহত! http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114724 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/05/1665240414_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/05/1665240414_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥<br>নাঙ্গলকোটে যুদ্ধাপরাধীর নাতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন কালুর ছেলে মহিন উদ্দিন ডিস ব্যবসায়ী কবিরকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায় শামসুদ্দিন কালুর ছেলে মহিন উদ্দিন ও কবির হোসেন দীর্ঘদিন যাবৎ নাঙ্গলকোটে ডিস ব্যবসা করে আসছে। কয়েকদিন থেকে দু'জনের মধ্যে ডিস বিল পরিশোধিত টাকাপয়সা নিয়ে বিরোধ লেগে আছে। গতকাল(৬অক্টোবর) নাঙ্গলকোট উত্তর পাড়া দোকানের সামনে মহিন উদ্দিন কবিরকে ডেকে এনে কথা কাটাকাটির মধ্যে এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি লাথি মারতে থাকে। একপর্যায়ে কবির মাটিতে নুড়ে পড়লেও মারতে থামেনি মহিন। <br>কবিরের ডাক চিৎকারে আসপাশের লোকজন আসলে মহিন পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় কবিরকে স্থানীয় লোকজন নাঙ্গলকোট পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন- কবির ও মহিন দাঁড়িয়ে কথা বলতেছে। তৎক্ষনাৎ কবিরের উপর মহিন আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে। আমরা সবাই মিলে দৌড়ে আসলে কবিরকে মেরে আহত করে মহিন চলে যায়। তবে- কি জন্য মেরেছে তা জানি না। <br><br>হামলার বিষয়ে কবিরের পরিবারের পক্ষ থেকে জানান- কয়েকদিন থেকেই মহিন কবিরকে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে এবং তা বাস্তব চিত্র হামলার শিকার হয়ে আহত হয়ে কবির হাসপাতালের। and nbsp; হামলার বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ ফারুক আহম্মেদ জানান- হামলার অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নিবো। and nbsp; অতঃপর শামসুদ্দিন কালু ও তার ছেলে মহিন, কবিরসহ তার পরিবারের লোকজনকে হুমকি ধমকি দেখিয়ে সমঝোতা করতে বাধ্য করেন।<br><br><br></body></HTML> 2022-10-08 20:43:53 1970-01-01 00:00:00 সেই শিক্ষিকা রৌশন মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম সবুজ সঙ্গে আটক http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114723 http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/01/1664639043_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/10/01/1664639043_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি<br>বহু আলোচিত সমালোচিত হোমিও কলেজের শিক্ষিকা ফখরুন নাহার রৌশনকে জমিরিয়া মাদ্রাসা শিক্ষক মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম সবুজ সঙ্গে দিগম্বর অবস্থায় আটক করে স্থানীয় জনতা। গত কিছু দিন পূর্বে উপজেলার ঢালুয়া ইউপির ঢালুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের গেইটের সামনে আহমাদ হোমিওপ্যাথি মেডিসিন সেন্টার ভিতরে রাত ৩টার সময় তাদের আটক করা হয়। <br>সুত্রে জানা যায়, ফখরুন নাহার রৌশনের একটি ছেলে জমিরিয়া মাদ্রাসা পড়াতেন। সেই সুবাদে রৌশন প্রায় সময় মাদ্রাসায় আসা যাওয়া করে। এরি ফাঁকে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম সবুজের সঙ্গে। প্রায় সময় দুজন দেখা করত দূরে কথাও গিয়ে। সর্বশেষ গত কয়েক দিন পূর্বে রাত ৩ টার সময় সবুজকে নিজ প্রতিষ্ঠান আহমাদ হোমিও মেডিসিন সেন্টার ডেকে নিয়ে যান রৌশন। সেখানে আপত্তিকর অবস্থায় দুজনকে আটক করে স্থানীয় লোকজন। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান ভূইয়া বাছির, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হক ও রৌশনের পিতা মাওলানা মকবুল আহাম্মদ মিলে ঘটনাটির দামাচাপা দেয়। <br>এ বিষয় মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম সবুজের মুঠো ফোনে বার বার কল দিও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।<br>সাংবাদিক পরিচয় দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে রৌশনও তার মুঠো ফোন বন্ধ করে দেয়। <br>জমিরিয়া মাদ্রাসার সুপার মাও. সাইফুল ইসলাম বলেন, আপনার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলতে পারবো না। আমরা শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম সবুজকে বহিষ্কার করে দিয়েছি। <br>ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান ভূইয়া বাছিরও এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি নন। <br><br>উল্লেখ্য- ঢালুয়া ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামের এ রৌশন প্রায় ১০ বছর আগে ইসলামী শরিয়া মোতাবেক এনায়েত উল্যাহ নামের এক যুবকের সাথে তার বিয়ে হয়েছে। এনায়েতের বাড়ি পাশ্ববর্তী জোড্ডা ইউনিয়নের দুইয়ারা গ্রামে। বিয়ের কিছুদিন পর স্বামী এনায়েত উল্যাহ বিদেশ চলে যায়। রৌশনের কোলজুড়ে আসা প্রথম সন্তান জন্মের কয়েক মাস পর মারা যায়। বহুরুপী সেই রৌশনের পরকীয়ার শিকার হয়ে সর্বশান্ত হয়েছে অসংখ্য যুবক। তার পরকীয়া থেকে বাদ যায়নি হিন্দু যুবকও। যুবকদেও সাথে অশ্লীল কাজের বিভিন্ন ভিডিও, ছবি ও কল রেকর্ড থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। <br>স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রৌশন নাঙ্গলকোটের বাদশা আমেনা হোমিও কলেজের শিক্ষিকা হিসেবে চাকুরী করছে। স্বামী বিদেশ থাকার সুযোগে শুরু হয় রৌশনের পরকীয়া প্রেম। এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। ঝগড়ার অযুহাতে রৌশন স্বামীর বাড়ি ত্যাগ করে বাবার বাড়িতে চলে আসে। তবুও বন্ধ হয়নি তার পরকীয়া প্রেম। তার প্রেমে বাদ পড়েনি হিন্দু যুবকও। বাবার বাড়িতে এসে সে ‘আহমেদ হোমিও হল’ নামের একটি হোমিও চেম্বার খুলে। ওই চেম্বারে রোগী দেখার পাশাপাশি চালায় অসামাজিক কার্যকলাপ। সেখানে প্রেম করা যুবকদের সাথে অন্তরঙ্গ ছবি তুলে। এমনই এক যুবক তার প্রতারণার শিকার হয়ে রৌসনের মোবাইলে তোলা অশ্লীল সব ছবি ও একাধিক যুবকের সাথে কথা বলার রেকর্ডসহ বিভিন্ন ডকুমেন্ট সাংবাদিকদের নিকট দেয়। অভিযোগে আরও জানা গেছে, রৌশন তার গ্রামের শিব্বির আহমেদ নামের এক যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। বিভিন্ন পার্কে গিয়ে তার সাথে অন্তরঙ্গ ছবি তুলে। এছাড়াও ইমুতে কল করে উঠতি বয়সের যুবকদের তার পোশাক বিহীন ছবি দেখিয়ে পাগল করে তুলে। তার প্রেমের লীলা খেলায় নষ্ট হচ্ছে গ্রামের যুবকরা। এছাড়া কুমিল্লার একটি হোমিও কলেজে লেখাপড়ার সুযোগে সে সপ্তাহে কয়েকবার কুমিল্লায় থাকে।<br><br><br></body></HTML> 2022-10-01 21:43:45 1970-01-01 00:00:00 সোনাগাজীতে দৈনিক সমকালের প্রতিনিধিকে প্রাণনাশ ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি, থানা জিডি http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114722 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/29/1664633701_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/29/1664633701_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধিঃ<br>ফেনীর সোনাগাজীতে পাওনা টাকা ফেরত চাওয়াতে দৈনিক সমকালের সোনাগাজী প্রতিনিধি সাংবাদিক আবুল হোসেন রিপন কে প্রাণনাশ ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি ধামকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।<br>এ বিষয়ে শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর রাতে তিনি বাদি হয়ে দুইজনের নাম উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় সাধারন ডায়েরী করেছেন। <br>অভিযুক্তরা হলেন, সোনাগাজী পৌরসভার উত্তর চরছান্দিয়া গ্রামের মাহমুদুল হাসান নোমান ও তার ভাই রাশেদুল হাসান রায়হান।<br>তারা ওই গ্রামের মৌলভি বাড়ির একেএম মুসা মিয়ার ছেলে।<br>সাধারন ডায়েরীতে সাংবাদিক রিপন উল্লেখ করেন, অভিযুক্তদের সাথে তার সু-সম্পর্ক ছিলো। এ সুবাদে অভিযুক্ত রায়হানের জরুরী কাজের কথা বলে এক মাসের মধ্যে ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সাংবাদিক আবুল হোসেন রিপনের কাছ থেকে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ধার নেয় রায়হান। দীর্ঘ সময় পার হলেও রায়হান টাকা ফেরত না দিয়ে টালবাহানা করে আত্মগোপন করেন।<br>গত ২৩ সেপ্টেম্বর রায়হান ও তার ভাই নোমান কে পৌরসভার কাশ্মিরবাজার সড়কে দেখতে পেলে সে তাদের কাছে টাকা ফেরত চায়। এসময় তর্কাতর্কির একপর্যায়ে তারা সাংবাদিক কে মারধরের চেষ্টা করে, টাকা চাইলে প্রাণনাশ ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে উপস্থিত লোকজন সাংবাদিক রিপন কে উদ্ধার করে নিরাপদে পৌছিয়ে দেয়।<br>সাংবাদিক আবুল হোসেন রিপন জানায়, ঘটনাটি সামাজিকভাবে মিমাংসার উদ্যেগের কারণে থানায় সাধারন ডায়েরী করতে বিলম্ব হয়। ঘটনার পর থেকে তাদের অব্যহত হুমকিতে জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত রয়েছে বলে জানান তিনি।<br>সোনাগাজী মডেল থানার ওসি খালেদ হোসেন দাইয়ান বলেন, অভিযোগটি গুরত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।</body></HTML> 2022-10-01 20:13:32 1970-01-01 00:00:00 কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫নং ওয়ার্ড(নাঙ্গলকোট)'র সদস্য পদপ্রার্থী এ কে এম বাহাউদ্দীন কোরাইশী http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114721 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/28/1664380378_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/28/1664380378_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">নিজস্ব সংবাদদাতাঃ </span><br>আসন্ন কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫নং ওয়ার্ড(নাঙ্গলকোট উপজেলা)'র উটপাখি প্রতিক মার্কায় সদস্য পদপ্রার্থী এ কে এম বাহাউদ্দীন কোরাইশী (শুভ খান)। and nbsp;<br>তিনি কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড হরিপুর উত্তর পাড়ার মোঃ হারুন-উর-রশিদ ও মিসেস নার্গিস আক্তারের গর্বিত সন্তান। <br>শুভ খানের বাড়ি and nbsp; মেজ সাববাড়ি নামেও পরিচিত। <br>শুভ খান ১৯৮৫ সালের ১০ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। <br>২০০১ সালে এস এস সি, ২০০৫ সালে এইচ এস সি, ২০১০ সালে বি বি এ ও ২০১১ সালে এম বি এ ডিগ্রী সম্পন্ন করেন। <br>বর্তমানে তিনি যমুনা ব্যাংক লিমিটেড এর নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে ঢাকা মতিঝিল-২ দিলকুশা হেড অফিসে কর্মরত আছেন। <br>তার পিতা মোঃ হারুন-উর-রশিদ, আবুল খায়ের স্টীল মিল এর অবসরপ্রাপ্ত ম্যানেজার। মাতা- মিসেস নার্গিস আক্তার, ঢাকা and nbsp; পিলখানায় বি জি বি পরিচালিত বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষিকা। ভাই মেজর সামিউর রশিদ, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এস পি পি, ই বেংগল এর অধীনে সেনা প্রধানের উপ-সামরিক সহকারি পদে কর্মরত আছেন। and nbsp; বোন- মারিয়া নাজরীন, ঢাকা, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।<br>এ কে এম বাহাউদ্দীন কোরাইশী(শুভ খান) ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি শুরু করেন। <br>পারিবারিক ভাবে তারা আওয়ামী পরিবার হিসেবে এলাকায় পরিচিত। <br> and nbsp;তিনি ২০০৩ সাল থেকে ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় হন। ২০০৫ সালে তেজগাঁও কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে ছিলেন বর্তমানেও তিনি রাজনৈতিক প্রাঙ্গণে বিভিন্ন কর্মকান্ডের সাথে জড়িত আছেন। <br>এছাড়াও আওয়ামী যুবলীগ ও আওয়ামীলীগের সকল স্তরের নেতাকর্মীদের সাথে সব সময় বিভিন্ন প্রোগ্রাম, সামাজিক অনুষ্ঠান এবং দলীয় প্রোগ্রামগুলোতে উপস্থিত থেকে দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামীলীগ এর রাজনীতির সাথেও জড়িত আছেন। <br>শুভ খান ২০০৭ সাল থেকে ব্যবসায়িক জীবন শুরু করেন। এবং ২০১১ সালে যমুনা ব্যাংকে চাকুরী শুরু করার কারণে আওয়ামীলীগের কোন পদ না নিলেও আওয়ামী লীগের কর্মী হিসেবে সবসময় ছিলেন এবং বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগ এবং যুবলীগের আওয়ামী লীগ কমিটির সদস্যদের সাথে তার সু-সম্পর্ক বজায় রয়েছে। <br>এ কে এম বাহাউদ্দীন কোরাইশী শুভ খান আওয়ামী পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল লোটাস কামাল এম পি এর কাছে নাঙ্গলকোট পৌরসভার মেয়র নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন এ অংশ গ্রহণ করতে চান এবং জাতির and nbsp; জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে তরুণ নেতৃত্ব এবং তরুণ রাজনীতিক হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে চান। <br>এছাড়া তিনি মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল)এমপি এর হাত ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে শক্তিশালী করতে চান। <br>তাঁর দাদা মরহুম হাসানুজ্জামান খানের মেজো ছেলে সাবেক সংসদ সদস্য ডাক্তার এ কে এম কামরুজ্জামান খান (বিশ্ব বিখ্যাত মনোরোগ বিশেষজ্ঞ )। ২০০৬ সালে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তে দেশের সকল প্রার্থীর সাথে একযোগে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেন। বর্তমানে উনি আমেরিকাতে অবস্থান করছেন এবং আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পন্ন জড়িত আছেন। <br>তার পারিবারিক সম্পত্তিতে নাঙ্গলকোটের প্রতিষ্ঠানসমূহ : <br>পরিচালনায় and nbsp; ডাক্তার এ কে এম কামরুজ্জামান খান সাহেব :<br>তার পারিবারিক প্রতিষ্ঠানসমূহ : <br>১. নাঙ্গলকোট এ and nbsp; আর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়। <br>২.নাঙ্গলকোট হাসান মেমোরিয়াল ডিগ্রী কলেজ। <br>৩. বেগম জামিলা মেমোরিয়াল বালিকা বিদ্যালয়। <br>৪. ডাক্তার কামরুজ্জামান কিন্টারগার্ডেন। ৫.বালিকা মাদ্রাসা। <br>৬.বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল। <br>৭. নাঙ্গলকোট প্রাইমারি স্কুল। <br>৮.টিএনটি অফিস। <br>৯.ডাক্তার কামরুজ্জামান মানসিক হাসপাতাল। <br>১০.নাঙ্গলকোট সরকারি হাসপাতালের (অধিকাংশ সম্পত্তি)। <br>১১.হাসান জামিল ফাউন্ডেশন এবং আলী আহাম্মদ ফাউন্ডেশন এবং রওশন রফিক একাডেমী মাধ্যমে শিক্ষা বিস্তার এবং গরীব দুঃখী মানুষের সাহায্যের জন্য নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে আছে যাহা সব সময় অব্যাহত আছে। <br>দাদা মরহুম মৌলভী আলী আহাম্মদ সাহেবের বড় ছেলে ইঞ্জিনিয়ার শওকত আলী ফারুকী(বাচ্চু মিয়া) ছিলেনঃ <br>১. ১৯৭১ মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক। <br>২.১৯৭১ নাঙ্গলকোট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচিত। <br>একেএম মনিরুজ্জামান খান and nbsp; (ডাক্তার এ কে এম কামরুজ্জামান সাহেবের ভাতিজা )<br>১.২০১৪ সালে নাঙ্গলকোট পৌরসভা মেয়র নির্বাচিত হন। মরহুম and nbsp; আরিফুর and nbsp; রহমান and nbsp; এবং and nbsp; উনার ওয়ারিশদের and nbsp; সামাজিক ও রাজনৈতিক and nbsp; অবদান and nbsp; সংক্ষেপে <br>আরিফুর রহমান: and nbsp; (১৮৬৬-১৯২৩), পেশা: and nbsp; শিক্ষকতা, অবদান: ১৮৯২ হরিপুর নিজ গ্রামে মাদ্রাসা স্থাপন, পরবর্তীতে আরাকিয়া জুনিয়ার মাদ্রাসা এবং বর্তমান নাঙ্গলকোট মডেল সরকারি বিদ্যালয় নামে পরিচিত। <br>মরহুম মৌলভী হাসানুজ্জামান খান সাহেব (১৯০০-১৯৬৮), পেশা : শিক্ষকতা। অবদান : ১৯২৭ সালে নাঙ্গলকোট মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপিত করেন। ১৯২৮ and nbsp; সালে কুমিল্লা কো- অপারেটিভ ডিরেক্টর পদে নির্বাচিত । ১৯২৯ সালে লাকসাম কো- অপারেটিভ ব্যাংক শাখার প্রতিষ্ঠাতা। ১৯২৯ সালে কুমিল্লা জেলা বোর্ড সদস্য নির্বাচিত। ১৯৩২ সালে নাঙ্গলকোট ইউনিয়ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত। ১৯৩৪ সালে লাকসাম কো-অপারেটিভ ব্যাংকের সেক্রেটারি নির্বাচিত। ১৯৩৭ লাকসাম- হাজিগঞ্জ -চৌদ্দগ্রাম আসন থেকে সংসদ সদস্য and nbsp; নির্বাচিত। ১৯৩৮ সালে রেলওয়ে বোর্ডের মেম্বার নির্বাচিত এবং প্রথম রেলওয়ে বোর্ডের বাঙালি মেম্বার। ১৯৪১ সালে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত। ১৯৫০ সালে দ্বিতীয় বার নাঙ্গলকোট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত। ১৯৫৫ সালে তৃতীয়বার নাঙ্গলকোট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৪১ সালে নাঙ্গলকোট নিজের বাবার নামে নাঙ্গলকোট এ আর উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাতা। ১৯৬২ সালে এম এল এ সংসদ সদস্য নির্বাচিত। ১৯৬২ একই বছর ত্রাণ ও পূর্ণবাসন মন্ত্রণালয়ের সেক্রেটারি নিযুক্ত হন। ১৯৬২ একই বছর পার্লামেন্ট হুইপ মনোনীত হন। ১৯৬৩ ভূমি সংস্কার বোর্ডের সদস্য নিযুক্ত হন। <br>মরহুম মৌলভী আলী আহাম্মদ (১৯০৫-১৯৮৫), পেশা :শিক্ষকতা। <br>অবদান: ১৯৪০ সালে তৎকালীন নাঙ্গলকোট ইউনিয়ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত। ১৯৪০ সালে লাকসাম থানা উন্নয়ন কমিটির থানা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত। ১৯৪১ সালে বড় ভাই সহযোগী হিসেবে পিতার নামে এ আর স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৪২ সালে কুমিল্লা জেলা জজকোর্টের জুরির হাকিম হিসেবে নিয়োগ। ১৯৪৫ সালে পুনরায় নাঙ্গলকোট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত এবং লাকসাম থানা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত। ১৯৫০ সালে নাঙ্গলকোট ইউনিয়ন ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত। ১৯৫৩ সালে কুমিল্লা জেলা বোর্ডের মেম্বার নির্বাচিত। ১৯৬৮ সালে কো-অপারেটিভ ব্যাংকের চেয়ারম্যান নির্বাচিত। ১৯৭৬ সালে and nbsp; কেন্দ্রীয় কো-অপারেটিভ সম্বলিত চেয়ারম্যান নির্বাচিত। ১৯৬৮ সালে নাঙ্গলকোট কলেজ প্রতিষ্ঠা। ১৯৮০ সালে তৎকালীন নাঙ্গলকোটকে পল্লীতে নিয়ে আসা এবং নাঙ্গলকোট থানা ঘোষণা এবং বাস্তবায়ন কমিটি মেম্বার। <br>অতঃপর পারিবারিক ঐতিহ্যের সাথে তালমিলিয়ে নিজেকেও জনগণের সেবায় নিয়োজিত রাখতে চান কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫নং ওয়ার্ড(নাঙ্গলকোট)'র সদস্য পদপ্রার্থী এ কে এম বাহাউদ্দীন কোরাইশী(শুভ খান)।</body></HTML> 2022-09-28 21:51:43 1970-01-01 00:00:00 শিশু ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114720 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/26/1664293637_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/26/1664293637_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥ </span><br>ফেনী সদর উপজেলায় শিশু (৫) ধর্ষণের অভিযোগে ফখরুল ইসলাম (২২) নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির মা ফেনী সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। ওই শিক্ষক ফেনী থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন।<br><br>পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি স্থানীয় একটি নুরানি মাদ্রাসার ছাত্রী। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) তাকে ডেকে মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে হাত-পা বেঁধে মুখে স্কচটেপ পেঁচিয়ে ধর্ষণ করেন ফখরুল ইসলাম। বিষয়টি কাউকে না বলতে নিষেধ করেন। পরে বাড়ি ফিরে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর ধর্ষণের বিষয়টি মাকে জানায়। শিশুটির মা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের ঘটনাটি জানান। এরপর মাদ্রাসায় গিয়ে ফখরুল ইসলামকে পিটুনি দিয়ে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। পুলিশ ওই মাদ্রাসায় গিয়ে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।<br><br>ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিজাম উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা মামলা করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষক ফখরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। পরে আদালতে পাঠানো হবে।</body></HTML> 2022-09-27 21:45:18 1970-01-01 00:00:00 চৌদ্দগ্রামে পূর্ব বিরোধের জেরে প্রবাসীকে হত্যাচেষ্টা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114718 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/25/1664121761_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/25/1664121761_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥</span><br> and nbsp;কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে গাজী শাহজালাল (৩৭) নামে এক সৌদি প্রবাসীর উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় প্রবাসী শাহজালাল সহ আব্দুস সাত্তার (৪২) নামে আরও একজন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পৌরসভাধিন মধ্যম চাঁন্দিশকরা গাজী বাড়ীতে। এ ঘটনায় পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৪-৫ জনের নামে ভুক্তভোগির পরিবারের পক্ষ থেকে চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।<br><br>অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে এগারটায় ভুক্তভোগি গাজী শাহজালাল তার নিজ বাড়ীর পাশে পৈত্রিক সূত্রে মালিকানাধিন পুকুরে জাল দিয়ে মাছ ধরতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জেরে একই এলাকার গাজী আবুল বশরের ছেলে গাজী বাবু ও গাজী রিফাত, গাজী শাহজাহানের ছেলে গাজী আবুল বশর ও গাজী ফারুক এবং মৃত জুনা মিয়ার ছেলে গাজী শাহজাহানসহ অজ্ঞাতনামা আরও চার-পাঁচজন লোক ধারালো দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় শাহজালালের মাথা ও পেটে ১নং বিবাদী গাজী বাবুর হাতে থাকা ছেনির কোপ লাগে। এতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে ২নং বিবাদী গাজী ফারুক তার হাতে থাকা রামদা দিয়ে শাহজালালের দুই পায়ে এলোপাতাড়ি কোপ মারে এবং লোহার রড ও এসএস পাইপ দিয়ে পেটাতে থাকে। এতে শাহজালালের একটি পা ভেঙ্গে গেছে এবং অপর পা মারাত্মক ক্ষতবিক্ষত হয়। এ সময় অপরাপর বিবাদীরাও শাহজালালকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি মারধর করে। এদিকে শাহজালালের চিৎকার শুনে তার জেঠাতো ভাই গাজী আব্দুস সাত্তার এগিয়ে আসলে উল্লেখিত বিবাদীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তার উপরও হামলা চালায়। হামলায় আব্দুস সাত্তারও গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় শাহজালাল ও আব্দুস সাত্তারকে উদ্ধার করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহতরা কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় রয়েছে এবং থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূলহোতা গাজী বাবুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।<br><br>আহত শাহজালালের স্ত্রী খালেদা বেগম জানান, ‘বিবাদীদের সাথে আমার স্বামীর পরিবারের দীর্ঘদিন যাবৎ জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। এ ব্যাপারে কয়েকদফা গ্রাম্য শালিস দরবার হলেও কোনো মীমাংশা হয়নি। ঘটনার দিন আসামীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আমার স্বামীর উপর হামলা চালিয়ে তাকে মারাত্মকভাবে আহত করে। এ সময় আমার ভাশুর আব্দুস সাত্তারও গুরুতর আহত হন। আমি প্রশাসনের কাছে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি’।<br><br>এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, ‘দুইপক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাবু নামে একজনকে আটক করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে ’।<br><br>এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর বদিউল আলম পাটোয়ারী জানান, ‘প্রবাসীর উপর হামলার ঘটনার কথা শুনেছি। আহত শাহজালাল ও আব্দুস সাত্তারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লায় প্রেরণ করা হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংশার চেষ্টা চলছে ’।</body></HTML> 2022-09-25 22:02:22 1970-01-01 00:00:00 বাদল চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ৩ জনের নামে মামলা http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114717 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/25/1664121553_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/25/1664121553_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">সোনাগাজী প্রতিনিধি ॥</span><br>ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার ৩নং মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের ২ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন বাদল'র বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর পোস্ট দেওয়ায় ১/ Saddam Hossain, ২/ Enamul Haque ও ৩/ Arsalan Ahmed নামে ৩টি ফেসবুক আইডির এডমিনের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ এর অধীনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। উল্লেখিত বিবাদীগণ মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের রাজাপুর গ্রামের অধিবাসী। <br><br>মামলায় উল্লেখ করা হয় বাদী একজন সনামধন্য আওয়ামিলীগ নেতা ও মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের ২ দফায় নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান, বিবাদীগণ দুষ্ট প্রকৃতির, মাদক কারবারি সহ নানান অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত হওয়ায় বাদী মোশাররফ হোসেন বাদল বিবাদীদের মাদকের কারবার ও অসামাজিক কাজ থেকে নির্বৃত্ত থাকার জন্য বললে বিবাদীগণ ক্ষিপ্ত হয়ে বাদী বাদল চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর পোস্ট করে মর্যাদাহানি করে। <br><br>বাদী মোশাররফ হোসেন বাদল বিবাদীদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৪ /২৫/ ২৬/২৯ / ৩৪ /৩৫ ও ৩৭ ধারায় ডিজিটাল মাধ্যম ব্যবহার করে আইডি হ্যাকড্ করে তথ্য চুরি ও ফেসবুকে সম্মান হানিকর পোস্ট করার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেছেন বলে জানান। ইতিমধ্যে আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ প্রদান করেছেন। <br><br>এছাড়াও মোশাররফ হোসেন বাদল চেয়ারম্যান বর্ণিত বিবাদীদের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেন।<br><br>চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন বাদল সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে উল্লেখিত বিবাদীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট দাবি জানান।</body></HTML> 2022-09-25 21:57:55 1970-01-01 00:00:00 সোনাগাজীতে পুর্ব শত্রুতার জেরঃ (হিন্দু) মরণ দেবনাথের খড়ের গাদায় আগুন http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114716 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664036174_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664036174_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">মোঃ আব্দুর রহিম :</span><br>সোনাগাজীতে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে খড়ের গাদায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে দুবৃত্তরা।<br>গত শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার দিকে সোনাগাজী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড মহাদেব প্রকাশ যুগী বাড়ীর মরণ দেবনাথ এর বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করাও প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান ভুক্তভোগী। শুক্রবার পরিবারের সবাই রাতের খাবার খেয়ে ঘুমাতে গেলে এ সুযোগে দুর্বৃত্তরা বাড়ীর রাস্তার পুকুর সংলগ্ন খড়ের গাদায় আগুন ধরিয়ে দেয়। বাড়ীর আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নিবানোর চেস্টা করেও ব্যথ হয়। ভুক্তভোগীর ৪ একর জমির খড় ৫ টি গরুর (গো-খাদ্য) অনেকটা পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে সোনাগাজী ফায়ারসার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিলেও এঘটনায় কেউ হতাহতের খবর পাওয়া যায় নি।<br><br>স্থানীরা জানায়, সোনাগাজী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড মহাদেব প্রকাশ যুগী বাড়ীর মরণ দেবনাথ এর সাথে তারই জেঠাতো ভাই মনোরঞ্জন দেব নাথ ও চিতরঞ্জণ দেব নাথের সাথে ১৬০ শতক জমি নিয়ে দীর্ঘ ২০ বছর ধরে বিরোধ চলে আসছে। এরই মধ্যে ৪টি মামলায় রায়ও পেয়েছে মরণ দেবনাথ।<br>মরণ দেবনাথ আরো জানান, তার জেঠাতো ভাই ৪ টি মামলায় হেরে যাওয়ার পর থেকে তার পরিবার কে বাড়ী থেকে উচ্ছেদ করার জন্য সন্ত্রাসীদের দিয়ে নানাভাবে ষড়যন্ত্র ও হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিলো।<br>৩১ আগষ্ট সোনাগাজী ভুমি অফিসে তার জেঠাতো ভাই মনোরঞ্জন দেব নাথ ও চিতরঞ্জণ দেব নাথের পক্ষে দুলাল ও চৌকদ্দন কোম্পানি নামক ব্যক্তিদ্বয় তার জেঠাতো ভাইদের এর পক্ষ নিয়ে এসি লেন্ড অফিসে প্রকাশ্যে তাদের বাড়ী ছাড়ার হুমকি প্রদান করেন এবং তারা এটাও বলে যে আদালত তাদের বিরুদ্ধে রায় দিলেও কোনো ক্রমেই তাদের বাড়ীতে থাকতে দিবে না মর্মেও হুমকি ধামকি দেয়। <br>স্থানীয়দের ধারণা এ বিরোধের জের ধরেই এই দুর্ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। <br>শনিবার সকালে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সোনাগাজী উপজেলা নেতা সমর দাস ও বাংলাদেশ পুজা উৎযাপন পরিষদ সোনাগাজী পৌরসভা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ মহাজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং প্রশাসনের প্রতি বিষয়টি সুষ্ঠ ভাবে তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবী জানান।<br>তবে এই ঘটনায় মরণ দেবনাথের জেঠাতো ভাইদের সাথে তাদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।<br>সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুঃ খালেদ হোসেন বলেন, শুক্রবার রাতে সোনাগাজী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডে হিন্দু বাড়ীতে গরুর খড়ের গাদায় আগুন লাগার খবর পেয়ে সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে, এঘটনায় এখনো পযন্ত কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। করলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।<br><br></body></HTML> 2022-09-24 22:15:45 1970-01-01 00:00:00 রাজনীতির ছত্র-ছায়ায় চুরি ডাকাতি ও ভূমিদস্যুতার অভিযোগ সোনাগাজীর মামুনের বিরুদ্ধে। http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114715 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664018056_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664018056_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥<br>সোনাগাজীতে রাজনীতির ছত্র-ছায়ায় চুরি ডাকাতি ভূমিদস্যুতা ও নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে জনৈক স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নজরুল ইসলাম মামুনের বিরুদ্ধে। সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়, সোনাগাজীর পূর্ব মহেশ্বর গ্রামের and nbsp; রফিকুল ইসলাম (৬০) এর পূত্র নজরুল ইসলাম মামুন নিজেকে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা পরিচয় দিয়ে ভূমিদস্যুতা, মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতি সহ নানান অসামাজিক কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। স্থানীয় একাধিক লোকজন তার কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হলেও ভয়ে মুখ খুলেনা, তার কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করলে হুমকি ধমকি দিয়ে মিথ্যা ও সাজানো মামলা-হামলা দিয়ে হয়রানি করতে পারে এই ভয়ে।<br><br>নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সোনাগাজী বাজারের এক ব্যবসায়ী জানান- মামুন চুরি-ডাকাতি সহ নানান অভিযোগে একাধিকবার জেল খেটেছে কিন্তু তার এইসব অপকর্ম বন্ধ হয়নি। and nbsp; বর্তমানেও সে ২০১৭ সালের একটি ডাকাতি মামলায় কারাগারে রয়েছে। এছাড়াও মহেশ্বর গ্রামে ফার্মেসি ব্যবসার আড়ালে গোপনে মাদকদ্রব্য বিক্রির অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। <br><br>একটি সূত্রে জানা যায় ২০১৭ সালে তার বিরুদ্ধে নৈরাজ্য সৃষ্টি ও নাশকতার মামলায় সে জেল খেটে ছিল, মামুন একজন জুলুমবাজ ভূমিদস্যু ও লাঠিয়াল শ্রেণির লোক, তার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক অন্যের ভূমি জবরদখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগে ফেনীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৪৫ ধারায় একটা মামলা (মিছ মামলা নং-৩০০/২০২২) বিচারাধীন রয়েছে। মামুনের এসব অপকর্মের বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে উপযুক্ত বিচার নিশ্চিত করে এলাকাবাসীকে শান্তি ও সহাবস্থানে বসবাস করার সুযোগ সৃষ্টি করতে স্থানীয় প্রশাসনের নিকট দাবি জানিয়েছেন মহেশ্বর গ্রামের সচেতন এলাকাবাসী।</body></HTML> 2022-09-24 17:12:15 1970-01-01 00:00:00 নাঙ্গলকোট মন্নরা বাজার যমুনা ব্যাংকের(এজেন্ট ব্যাংকিং) শাখার উদ্বোধন http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114714 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664017799_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/22/1664017799_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">জামাল উদ্দিন স্বপন</span><br>নাঙ্গলকোট ঢালুয়া মন্নরা বাজার যমুনা and nbsp; ব্যাংকের(এজেন্ট ব্যাংকিং) শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত। and nbsp; মন্নরা বাজার যমুনা এজেন্ট ব্যাংকিং-এর স্বত্ত্বাধিকারী মোঃ দেলোয়ার হোসেনের সার্বিক পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যমুনা ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং শাখার প্রধান এবিএম সাদী। and nbsp; উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যমুনা ব্যাংকের এসএভিপি মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন ঢালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের জননন্দিত চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান বাছির, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ জিল্লুর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংকার মোঃ লুৎফুর রহমান, মোঃ জসিম উদ্দিন মেম্বার, মন্নারা বাজার and nbsp; সমিতির সভাপতি মোঃ আলী আক্কাস, এসকে রাজিবুল ইসলামসহ প্রমূখ। <br>অতিথিরা বক্তব্যে বলেন- ব্যাংকিং সেবা থেকে যেন কোন গ্রাহক বঞ্চিত না হয়, সেজন্য দেশের আনাচে কানাচে এজেন্ট ব্যাংকিং-এর শাখা চালু করা হয়েছে। অনেক পরিবারের সদস্য না থাকায় দুরের শাখায় যাতায়াতের সমস্যার কারণে ভোগান্তি হয়। ব্যবসায়ীদের হাতের নাগাড়ে শাখা থাকলে, তাদের সময় অপচয় হয় না। <br>ডিজিটাল বাংলাদেশে সকল ডিজিটাল সেবা গ্রাহকদের প্রদান করবে বলে যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তাদের অঙ্গীকারবদ্ধতা প্রকাশ করেন। <br>এছাড়াও উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অতিথিবৃদ তাদের বক্তব্যে আলোচনা করেন।<br><br> </body></HTML> 2022-09-24 17:08:51 2022-09-24 17:10:18 বাতাখালী হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার নতুন ভবনের ২য় তালার ছাদ ঢালাই সম্পন্ন http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114713 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/17/1663684912_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/17/1663684912_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">কুমিল্লা প্রতিনিধি ॥<br>লাকসামের ঐতিহ্যবাহী বাতাখালী হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার নতুন ভবনের ২য় তালার ছাদ ঢালাই সম্পন্ন হয়েছে।মাননীয় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলামের সুপারিশে and nbsp; জেলা পরিষদ ১০ লাখ টাক ও স্হানীয় জনগনের সহায়তায় মোট ব্যয় হয়েছে ১২ লক্ষ টাকা।<br>এখন সাইডওয়াল, ইলেকট্রনিক কাজ সহ ফিনিশিং করতে আরো ১০ লাখ টাকা প্রয়োজন। ইনশাআল্লাহ আল্লাহ অবশিষ্ট কাজ সুস্পন্ন করে দিবেন। <br> and nbsp;উল্লেখ্য, বাতাখালী হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার বর্তমানে শিক্ষার্থী ২৬০ জন। এতিম ১৪ জন। বোর্ডিংয়ে প্রতিবেলা ৭০ জনের খাদ্য অর্থাৎ প্রতিদিন ২১০ জনের আহারের ব্যবস্থা আল্লাহ রহমতে যোগান হয়ে থাকে। <br>বাবুচি, সংগীত শিল্পী সহ ৯ জন শিক্ষক - কর্মচারী দ্বারা প্রতিষ্ঠানটি সুন্দরভাবে পরিচালিত হয়ে আসছে। <br><br>বিশিষ্ট সাংবাদিক এম এস দোহার সন্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন and nbsp; ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু ছায়েদ বাচ্চু, কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্রকৌশলী শরীফুল ইসলাম, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু ছায়েদ, আহাদ। <br>উপস্থিত ছিলেন and nbsp; দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি আবদুল কুদ্দুস , সাপ্তাহিক আমাদের অধিকার সম্পাদক কামাল উদ্দিন,,নয়াদিগন্ত প্রতিনিধি and nbsp; মিজানুর রহমান , সাপ্তাহিক সবুজ পত্র সম্পাদক জামাল উদ্দিন স্বপন, and nbsp; and nbsp; সমাজ সেক তোফাজ্জল হোসেন,যুবলীগ নেতা মইন উদ্দিন তালুকদার,রাসেল ভুইয়া, and nbsp; জালাল আহমেদ, সাহেদ আলম, সাব্বির আহমেদ, আবুল বাশার,সমাজ সেবক শাহজালাল শাজু, জাহাংগীর আলম, কন্টাকটার সুমন প্রমূখ। <br>মোনাজাত পরিচালনা করেন ক্বারী মাওলানা মোহাম্মদ নাজমুল হাসান।</body></HTML> 2022-09-20 20:40:41 1970-01-01 00:00:00 জামিন পেলেন ফেনীর সাংবাদিক গাজী হানিফ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114712 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1663255682_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1663255682_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনী প্রতিনিধি ॥</span><br>ফেনীর সোনাগাজী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক অগ্রসর পত্রিকার ফেনী প্রতিনিধি সাংবাদিক গাজী হানিফ এর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে সোনাগাজীর সোলায়মান এর ছেলে ওমর বিন সোলায়মান কর্তৃক চট্টগ্রামের সাইবার পিটিশন মামলা নং ২২৭/২১ (ফেনী) দায়ের করে।<br>সাংবাদিক গাজী হানিফ ১৪ই সেপ্টেম্বর (বুধবার) সকালে চট্টগ্রামের আদালতে আত্মসমর্পণ করে and nbsp; প্রয়োজনীয় প্রমাণাদি উপস্থাপন করে জামিন প্রার্থনা করলে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক সন্তুষ্ট হয়ে তার জামিন মঞ্জুর করেন।<br><br>উল্লেখ্য যে, সোনাগাজীর মুহুরী প্রজেক্ট সংলগ্ন এলাকায় সরকারি সড়ক দখল করে তারকাঁটার ঘেরা ও লোহার গেইট লাগিয়ে জনসাধারণের চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় and nbsp; and nbsp; সোলায়মানের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করে ও ফেনীর জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন সাংবাদিক গাজী হানিফ। and nbsp; জেলা প্রশাসক ও জেলা প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ সরেজমিন পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পেয়ে ঐ সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে তারকাঁটা ও লোহার গেইট সরিয়ে নিতে বলেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে সাংবাদিক গাজী হানিফকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন ও চট্টগ্রামের সাইবার ট্রাইব্যুনালে (সাইবার পিটিশন মামলা নং ২২৭/২১) ২ কোটি টাকার মানহানীর মামলা দায়ের করে নানাভাবে হয়রানি করেন।<br><br>সাংবাদিক গাজী হানিফ এর পক্ষে নিযুক্ত এডভোকেট জোবায়ের মিরাজ, চট্টগ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক ও এডভোকেট গোলাম মাওলা মুরাদ, এডভোকেট আবু বক্কর সহ সিনিয়র আইনজীবীগণ জামিন আবেদন করেন।</body></HTML> 2022-09-15 21:26:41 1970-01-01 00:00:00 আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী মনিরা চৌধুরী সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114711 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1662789072_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><span style="font-weight: bold;"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1662789072_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">জয় আরিফঃ</span><br>আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী রাজপথ থেকে বেড়ে উঠা সময়ের সাহসী কন্যা, ২২ নং ওয়ার্ড যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা মহানগর উঃ যুব মহিলা লীগের সদস্য, তরুণ আওয়ামী মহিলা লীগ নেত্রী মনিরা চৌধুরী সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন। রাজপথ থেকে বেড়ে উঠা এক আওয়ামী কর্মীর নাম মনিরা চৌধুরী, যে কিনা আওয়ামী লীগের সকল সভা সমাবেশ ও কর্মসূচিতে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। বিশেষ করে তার দুইটি মনিরা চৌধুরী নামে ফেসবুক পেইজে দলের সকল উন্নয়নমূলক কর্ম কান্ড প্রচার করেন অর্থাৎ আওয়ামী লীগের সকল প্রচার-প্রচারণা নিয়মিত ভাবে চালিয়ে যান। এবং করোনা কালীন সময়ে গরিব দুঃখী, দিনমজুর, অসহায় নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন খাদ্য সামগ্রী, মাক্স এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে এবং সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন মানুষের পাশে। এবং ভবিষ্যতেও তিনি দলের প্রয়োজনে নিজেকে উৎসর্গ করবেন বলে জানিয়েছেন। এবং তিনি ২০২০ সালে রামপুরা থানা আওতাধীন ২২,২৩,৩৬ নং ওয়ার্ড অর্থাৎ সংরক্ষিত ৮, মহিলা কাউন্সিলর নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন যদিও নির্বাচিত হতে পারেন নাই‌। আগামীতে ও নির্বাচন করবেন এবং দল থেকে সমর্থন চাইবেন বলে জানিয়েছেন তাই সকলের কাছে দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন। মনিরা চৌধুরী একজন সৎ ত্যাগী এবং পরিশ্রমী কর্মী এবং দলের নিবেদিত প্রাণ ও জনবান্ধব নেত্রী। এবং তিনি তরুণ সমাজকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।</body></HTML> 2022-09-10 11:50:15 1970-01-01 00:00:00 ফেনীতে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে কিশোর গ্যাং এর হামলা স্বীকার হলেন,"ঢাকা পোষ্টের"ফেনী জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক আকাশ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114710 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1662565119_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/07/1662565119_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">ফেনীর ছাগলনাইয়া'য় সাংবাদিক এম এ আকাশের উপর কিশোর গ্যাং এর হামলার ঘটনায় ছাগলনাইয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়রী করা হয়েছে। <br><br> and nbsp;০৭ সেপ্টেম্বট বুধবার,দুপুর বেলায় ছাগলনাইয়া থেকে সংবাদ সংগ্রহের কাজ শেষ করে মোটারসাইকেল যোগে ফেনী যাওয়ার পথে বাংলা বাজার এলাকায় কতিপয় অজ্ঞাত কিশোর গাং এর সদস্যরা তার উপর এ হামলা চালায়।<br>সাংবাদিক এম এ আকাশ ঢাকা পোষ্টের and nbsp; ফেনী জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছে। হামলায় সাংবাদিক এম এ আকাশ শারীরিক ভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে।<br><br>হামলার বিষয়ে এম এ আকাশ জানান, কিছু দিন ধরে ফেনীতে কথিত কিশোর গ্যাং বৃদ্ধি পেয়েছে। সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রাখছে তারা। স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের and nbsp; কিশোর গ্যাং এর দিকে আগ্রহী করে তুলছে একটি চক্র। তারই সংবাদ সংগ্রহের কাজে যায় সাংবাদিক আকাশ। সংবাদ সংগ্রহ করে ছাগলনাইয়া থেকে বাংলা বাজারের কাছাকাছি আসলে অপরিচিত কিছু লোকজন প্রথমে আকাশের বাইক কে লক্ষ্য করে চলতি অবস্থায় তার দিকে ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে এতে আকাশ আঘাতপ্রাপ্ত হইলে তাৎক্ষণিক ভাবে সে মোটরসাইকেল যোগে ফেনীতে চলে আসে। পরে থানায় অভিযোগ দায়ের করে সাংবাদিক আকাশ।<br>সাংবাদিক আকাশ বলেন, আজকে তাঁরা and nbsp; আমাকে হত্যা করার লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়ে, কালকে তারা অবশ্যই আমাকে হত্যার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাবে। <br>সাংবাদিক আকাশের উপর হামলার ঘটনার খবর শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে যান স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্ধ।<br><br>ফেনী প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি, জসিম মাহমুদ and nbsp; জানান। আকাশের উপর হামলার ঘটনা আমরা ইতিমধ্যেই শুনেছি, সে কিশোর গ্যাং নিয়ে সংবাদ সংগ্রহ করে আসছিলেন। চলতি অবস্থায় সাংবাদিকের উপর এমন হামলার নিন্দনীয়। দোষীদের দ্রুত চিহ্নিত করে গ্রেফতার করার দাবি জানাচ্ছি। <br><br>ছাগলনাইয়া থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, সাংবাদিক এম এ আকাশের উপরে হামলার ঘটনা আমি শুনেছি, এ বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। and nbsp; ঘটনার তদন্ত পূর্বক দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি।</body></HTML> 2022-09-07 21:38:06 1970-01-01 00:00:00 রাখাইনে অস্থিরতার দিকে নজর রাখছে ভারত http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114709 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398390_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398390_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রতিক অস্থিরতার দিকে নয়াদিল্লি নজর রাখছে বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। রাখাইনে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সংঘাতের ফলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয় কি না, তা নিয়ে ঢাকার আশঙ্কার প্রেক্ষাপটে জয়শঙ্কর এ কথা জানালেন।<br><br>ভারত সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তার সফরকালীন আবাসস্থলের মিটিং রুমে বৈঠক করেন জয়শঙ্কর। সেই বৈঠকেই রাখাইন পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের পর্যবেক্ষণের কথা তুলে ধরেন তিনি।<br><br>বৈঠক শেষে ভারতীয় মন্ত্রীর বরাত দিয়ে সিনিয়র পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন সাংবাদিকদের জানান, তারা আমাদের বলেছে যে, ভারত সেখানে (রাখাইন রাজ্য) সৃষ্ট অস্থিরতার দিকে নজর রাখছে।<br><br>বৈঠকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে, রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রতিক অস্থিরতার ইস্যুতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ব্যাহত হবে কি না।<br><br>প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেকেরই সেই আশঙ্কা রয়েছে।’<br><br>এদিকে সাক্ষাতের একটি ছবি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করে জয়শঙ্কর লিখেছেন, বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পেরে আনন্দিত বোধ করছি।<br><br>‘আমাদের নেতৃত্ব পর্যায়ের উষ্ণ ও নিবিড় যোগাযোগই দুদেশের ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশীসুলভ অংশীদারত্বের সম্পর্কের নজির’--লিখেছেন জয়শঙ্কর।<br><br>চারদিনের সরকারি সফরে দুপুরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি চার্টার্ড ফ্লাইটে নয়াদিল্লি পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তাকে লালগালিচা অভ্যর্থনা দেওয়া হয়।<br><br>মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন ‘হায়দরাবাদ হাউস’-এ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে শেখ হাসিনার দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ও একান্ত আলোচনার কথা রয়েছে।<br><br>সফরকালে ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন বাংলাদেশের সরকারপ্রধান।</body></HTML> 2022-09-05 23:19:33 1970-01-01 00:00:00 মায়ের কবরে সমাহিত গাজী মাজহারুল আনোয়ার http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114708 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398337_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398337_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">বাংলা গানের কিংবদন্তি গীতিকার, সুরকার ও চলচ্চিত্র পরিচালক গাজী মাজহারুল আনোয়ারকে রাজধানীর বনানীতে মায়ের কবরে দাফন করা হয়েছে। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে বনানী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।<br><br>এর আগে সকাল ১০টায় তার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। সেখানে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। পরে বেলা ১১টার দিকে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে সর্বসাধারণের জন্য শ্রদ্ধা জানাতে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।<br><br>দুপুরে দিকে শ্রদ্ধা জানাতে মরদেহ নেওয়া হয়েছে এফডিসিতে। সেখানেই গাজী মাজহারুল আনোয়ারকে শেষবারের মতো দেখতে ও শ্রদ্ধা জানান তার সহকর্মী ও প্রিয় মানুষেরা। সেখানে প্রথম জানাজা হয়। এরপর গুলশানের আজাদ মসজিদে জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।<br><br>রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টায় রাজধানীর বারিধারায় নিজ বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন গাজী মাজহারুল আনোয়ার। পরে তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।<br><br>গাজী মাজহারুল আনোয়ার ১৯৪৩ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লার দাউদকান্দি থানার তালেশ্বর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৪ সালে ২১ বছর বয়সে রেডিও পাকিস্তানে গান লেখা শুরু করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্মলগ্ন থেকেই নিয়মিত গান ও নাটক রচনা করেন। গাজী মাজহারুল আনোয়ার প্রথম চলচ্চিত্রের জন্য গান লেখেন ১৯৬৭ সালে। ওই চলচ্চিত্রের নাম ছিল ‘আয়না ও অবশিষ্ট’।<br><br>১৯৬৭ সালে চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পর থেকে কাহিনি, চিত্রনাট্য, সংলাপ ও গান লেখায়ও দক্ষতা দেখান তিনি। তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘নান্টু ঘটক’ মুক্তি পায় ১৯৮২ সালে। তিনি মোট ৪১টি চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন। গাজী মাজহারুলের পরিচালিত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে অন্যতম- ‘শাস্তি’, ‘চোর’, ‘শর্ত’, ‘স্বাধীন’, ‘সমর’, ‘রাগী’, ‘আর্তনাদ’, ‘জীবনের গল্প’, ‘পাষাণের প্রেম’, ‘তপস্যা’, ‘ক্ষুধা’, ‘পরাধীন’, ‘এই যে দুনিয়া’, ‘হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ’।<br><br>অসংখ্য কালজয়ী গানের রচয়িতা গাজী মাজহারুল আনোয়ার। দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান লিখেছেন। ২০ হাজারেরও বেশি গানের রচয়িতা তিনি। ‘জয় বাংলা, বাংলার জয়’ ও ‘আছেন আমার মোক্তার আছেন আমার ব্যারিস্টার’ তার লেখা তুমুল জনপ্রিয় দুটি গান। বিবিসি বাংলার জরিপে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ২০টি বাংলা গানের তালিকায় স্থান পেয়েছে তার লেখা তিনটি গান।<br><br>গাজী মাজহারুল আনোয়ার ‘পীচ ঢালা পথ’, ‘নীল আকাশের নিচে’, ‘দীপ নেভে নাই’, ‘অবুঝ মন’, ‘চাষির মেয়ে’, ‘সূর্যগ্রহণ’, ‘অনন্ত প্রেম’, ‘গোলাপি এখন ট্রেনে’, ‘অশিক্ষিত’, ‘ডুমুরের ফুল’, ‘মহানগর’, ‘নতুন বউ’, ‘নাজমা’, ‘অভিযান’, ‘মা ও ছেলে’, ‘রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত’, ‘রাঙা ভাবী’, ‘ছুটির ফাঁদে’, ‘বাবার আদেশ’, ‘নিঃস্বার্থ ভালোবাসা’সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে গান লিখেছেন।<br><br>২০০২ সালে ‘একুশে পদক’ লাভ করেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার। ২০২১ সালে তিনি সংস্কৃতিতে ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ অর্জন করেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য গাজী মাজহারুল স্বাধীন দেশের সর্বপ্রথম পুরস্কার ‘বাংলাদেশ প্রেসিডেন্ট গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন। এছাড়াও গাজী মাজহারুল আনোয়ার ছয়বার ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’, একাধিকবার ‘বাচসাস পুরস্কার’, ‘বিজেএমই অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন।</body></HTML> 2022-09-05 23:18:39 1970-01-01 00:00:00 প্রথম চালানে ভারতে গেলো ৮ হাজার কেজি পদ্মার ইলিশ http://www.hazarikapratidin.com/details.php?id=114707 http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398279_th.jpg <HTML><head></head><body style="font-family: SolaimanLipi; font-size: 16px"><img src="http://www.hazarikapratidin.com/2022/09/05/1662398279_th.jpg" alt="" style="margin-right: 7px;" border="0px" align="left">দুর্গাপূজা উপলক্ষে দুই হাজার ৪৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির প্রথম চালানে দুই ট্রাকে আট মেট্রিক টন (৮ হাজার কেজি) ইলিশ গেলো ভারতে। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় কাস্টম ও বন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে ইলিশের ট্রাক প্রবেশ করে।<br><br>এরআগে রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) ৪৯ প্রতিষ্ঠানকে ভারতে ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেয় বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান ৫০ টন করে ইলিশ রপ্তানি করতে পারবে।<br><br>সোমবার সন্ধ্যায় প্রথম চালানে ৮ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি হয়েছে। রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানটি বরিশালের মাহিমা এন্টারপ্রাইজ। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারতের এস আর ইন্টারন্যাশনাল।<br><br>প্রতি কেজি ইলিশ মাছ ১০ মার্কিন ডলারে (বাংলাদেশি মুদায় ৯৪৯ টাকা) রপ্তানি হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন বেনাপোল মৎস্য পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ অফিসের পরিদর্শক মাহাবুব রহমান।<br><br>তিনি বলেন, পর্যায়ক্রমে বাকি ইলিশ রপ্তানি করা হবে। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব ইলিশ রপ্তানির নির্দেশনা রয়েছে।<br><br>সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পদ্মার ইলিশ পশ্চিমবঙ্গের বাঙালিদের কাছে প্রিয় হলেও দেশের চাহিদা বিবেচনায় বিভিন্ন সময় রপ্তানি বন্ধ রাখে বাংলাদেশ সরকার। ২০১২ সালে বাংলাদেশ থেকে ভারতে ইলিশ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। তবে এরপর বাংলাদেশ সরকার একাধিকবার ভারত সরকারকে শুভেচ্ছা উপহারস্বরূপ ইলিশ পাঠিয়েছে।<br><br>গতবছর দুর্গাপূজায় ১১৫ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানকে ভারতে চার হাজার ৬০০ টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। সে সময় ইলিশ সংকট ও রপ্তানি মূল্যের চেয়ে কেনা মূল্য বেশির কারণে এক হাজার ১০৮ টন ২৮০ কেজি ইলিশ রপ্তানি হয়।<br><br>বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট যুথী এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার মিজানুর রহমান বলেন, এবার প্রতি কেজি ইলিশের রপ্তানি মূল্য ১০ মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজি ৯৪৭ টাকা ৩৯ পয়সা। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টম থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এ চালান ছাড় করা হবে। বরিশালের মাহিমা এন্টারপ্রাইজ নামের একটি রপ্তানিকারকের ইলিশ ভারতে গেছে।<br><br>বেনাপোল কাস্টম হাউজের যুগ্ম কমিশনার আব্দুল রশীদ মিয়া বলেন, প্রথম চালানে আট মেট্রিক টন ইলিশ বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে গেছে। দ্রুত রপ্তানি করার জন্য কাস্টমসের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। <br><br><br><br><br><br><br></body></HTML> 2022-09-05 23:10:54 1970-01-01 00:00:00