শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
ফেনীতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে ধর্ষণ: ছবি ও ভিডিও ধারণ করে হুমকি
Published : Saturday, 10 July, 2021 at 6:07 PM

ফেনী প্রতিনিধি ॥
প্রথমে প্রেমের সম্পর্ক এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফেনীতে দিনের পর দিন এক তরুণী (২৩) কে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শাহাদাত হোসেন আবির নামে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত আবির কে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে নানা টালবাহানা করছেন। উল্টো তরুণীকে মুখ না খোলার জন্য বিভিন্ন রকম হুমকি ধামকিসহ ভয়ভীতি দেখায়।পরে ঘটনায় অভিযোগ করতে গিয়ে হয়রানীর স্বীকার হয়েছেন বলে জানান ভুক্তভোগী।এব্যপারে ভুক্তভোগী বিভিন্ন জনের দারে দারে গিয়েও সুফল পাচ্ছে না বলে জানায়।এ ঘটনায় তথ্য প্রমাণসহ বিস্তারিত দিয়ে মামলা হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন ঐ ভুক্তভোগী। অভিযুক্ত শাহাদাত হোসেন আবির শহরের একাডেমী এলাকার শিবলি সড়কের বাপ্পি ভুইয়া ম্যানশনের ভাড়া থাকেন।তার গ্রামের বাড়ী সোনাগাজী।তিনি ডাক্তার পাড়াস্থ বিগ বাজার শপিং মলের শেয়ার হোল্ডার বলে মামলা সূত্রে জানা যায়।

মামলার বিবরণে ভুক্তভোগী ঐ তরুণী জানায়, শহড়ের একাডেমী এলাকায় বসবাস করার সুবাদে তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে অভিযুক্ত শাহাদাত হোসেন আবিরের।একপর্যায় মোবাইলে এবং SHAHADAT HOSSAIN ABIR নামে ফেইসবুক আইডি'র ম্যাসেন্জারে কথা বলার সূত্র ধরে তাদের সম্পর্ক আরো গভীর হয় এবং তরুণীকে বিভিন্ন প্রলোভনে ফেলে তাদের সম্পর্কে আরো বিশ্বাস স্থাপন করে।একপর্যায়ে বিবাহের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার অঙ্গিকারও করে শাহাদাত হোসেন আবির।সে সুবাদে নানা ছলচাতুরী করে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে তোলেন।সম্পর্ককালীন শাহাদাত হোসেন আবির তার ব্যবসায় লোকসান হচ্ছে বলে ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে বিভিন্ন দাগে তরুণীর কাছ থেকে নগদ ২ লাখ টাকারও বেশী ধার নেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।এরপর যখন শাহাদাত হোসেন আবির কে বিবাহ'র জন্য বলা হয় তখনই সে নানা টালবাহানা করতে থাকে এবং মোবাইল ফোন ও ফেইসবুক ডিএক্টিভেটের মাধ্যমে সকল যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।পরে বিষয়টি তার পরিবার সহ বন্ধুদের জানালে অভিযুক্ত আবির তরুণীর গায়ে হাত তোলে এবং গালমন্দ করে।পাশাপাশি তরুণীর সাথে সম্পর্ক থাকাকালীন অবস্থায় ঘনিষ্ঠ হওয়া বেশকিছু ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার ভয়সহ হুমকি দিতে থাকে।

এ ঘটনাটি অভিযুক্ত শাহাদাত হোসেন আবিরের পরিবারকে জানালে তারাও বিষয়টি সুরাহা না করে উল্টো নানা প্রকার হুমকি ধামকি দিতে থাকে অভিযোগে তুলে ধরা হয়। পরে ভুক্তভোগী তরুণী এপ্রিলের ১ তারিখ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।কিন্তু সেটাতেও হয়রানী ছাড়া কোন ফল পাননি। উল্টো বিষয়টি নিয়ে লাগাতার নানা ঝামেলার শিকার হচ্ছেন বলে প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করেন তিনি।তাই সুষ্ঠ বিচারের দাবীতে জেলা পুলিশ সুপার সহ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন ভুক্তভোগী ঐ তরুণী। বিষয়টি জানতে অভিযুক্ত শাহাদাত হোসেন আবিরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে প্রথমে তিনি ফোন রিসিভ করেন এবং ঘটনাটি শুনার পর থেকে ফোন বন্ধ রাখেন। এব্যপারে ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক নিজাম উদ্দিন জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে এবং ঘটনাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী: মোবা: ০১৩১২৩৩৩০৮০।  প্রকাশক: মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী।
সহ সম্পাদক- রুবেল হাসান: ০১৮৩২৯৯২৪১২।  বার্তা সম্পাদক : জসীম উদ্দিন : ০১৭২৪১২৭৫১৬।  চীফ রিপোর্টার: ডিবি বৈদ্য: ০১৭৩৬-১৪৯২১০।  সার্কুলেশন ম্যানেজার : আরিফ হোসেন জয়, মোবাইল ঃ ০১৮৪০০৯৮৫২১।  রিপোর্টার: ইফাত হোসেন চৌধুরী: ০১৬৭৭১৫০২৮৭।  রিপোর্টার: নাসির উদ্দিন হাজারী পিটু: ০১৯৭৮৭৬৯৭৪৭।  মফস্বল সম্পাদক: রাসেল: মোবা:০১৭১১০৩২২৪৭   প্রকাশক কর্তৃক ফ্ল্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।  বার্তা, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ: ০২-৪১০২০০৬৪।  ই-মেইল : [email protected], web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি