মঙ্গলবার, ১৮ মে, 2০২1
ওজন কমাতে ঘি?
Published : Tuesday, 27 April, 2021 at 7:06 PM

স্বাস্থ্যসেবা ডেস্ক ॥
আপনি যদি ওজন কমানোর চেষ্টা করে থাকেন তবে আপনার কাছে ঘি মনে হতে পারে প্রধান শত্রু। ফ্যাটের অন্যতম উৎস ঘি হওয়ায় অনেকেই তাদের খাবার তালিকায় ঘি রাখতে চান না। তবে জানলে অবাক হবেন যে ঘি এর মাধ্যমে ওজন কমানো সম্ভব। ডায়েট চার্টে ঘি এর উপকারিতা সম্পর্কে চলুন জেনে নেওয়া যাক।

ঘি এর উপকারিতা
ডিএইচএর অন্যতম উৎস ঘি। ডিএইচএ হলো স্বাস্থ্যকর ফ্যাট যাতে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড রয়েছে। ডিএইচএ ক্যান্সার,হার্ট অ্যাটাক, আর্থারাইটিজের ঝুঁকি কমায়। প্রয়োজনীয় অ্যামিনো এসিড রয়েছে ঘি তে যা ফ্যাট সেলগুলোকে সংকুচিত করে। এ ছাড়া বাট্রিক এসিড, ভিটামিন এ,ডি, ই, কে রয়েছে যা রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বৃদ্ধি করে, হাঁড়কে শক্তিশালী করে, চোখ ভালো রাখে।

আয়ুর্বেদ শাস্ত্রমতে

আয়ুর্বেদের মতে, ঘি শরীরকে অনেক রোগ থেকে রক্ষা করে, পেশীগুলোকে শক্তিশালী করে, পুষ্টি জোগায়। ঘিতে রয়েছে ৯৯.৯ শতাংশ ফ্যাট, দ্রবণীয় ভিটামিন ও দুধের প্রোটিন। ঘি তে রয়েছে স্যাচুরেটেড ফ্যাট যা ঘরের তামপাত্রায়ও ক্ষতি হয় না।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী ঘি। আপনি যদি কোষ্ঠ্যকাঠিন্যের সমস্যায় ভোগেন তবে এক চামচ ঘি গরম দুধে মিশিয়ে রাতে পান করুন।

ওজন কমাতে ঘি

ওজন কমাতে প্রতিদিন ১ চামচ ঘি রাখুন খাবার তালিকায়। আপনার কাঙ্ক্ষিত ওজন অর্জিত হওয়ার পর তবে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রতিদিন ২ চা চামচ ঘি খাওয়ার চেষ্টা করুন। ঘিতে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড ও ওমেগা-৬ থাকায় তা ওজন কমাতে সাহায্য করে। ঘি শরীরে শক্তি যোগায় সেই সাথে ফ্যাট সেলগুলো ভেঙে দিতে সাহায্য করে।
সূত্র : দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া



সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি