রবিবার, ১৬ মে, 2০২1
আমার ওপর পুলিশি তান্ডব চলছে
Published : Tuesday, 20 April, 2021 at 8:46 PM

স্টাফ রিপোর্টার: সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই ও নোয়াখালী বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, গতকাল (সোমবার) রাতে আমার ৭ অনুসারীকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে এসেছে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ। রাতে পুলিশ এদের অমানবিক নির্যাতন করেছে। এ নির্যাতন ৭১ এর হানাদার বাহিনীর বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে।
তিনি বলেন, আমি আজ (মঙ্গলবার) সকালে থানায় তাদের দেখে আসার পথে এডিশনাল এএসপি শামীম ও কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি আমার গায়ে হাত তুলেছে, আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছে। আমার পৌরসভার কর্মকর্তা সাজেদুর রহমান সাজুকে মারধর করেছে, তার মোবাইল ছিনিয়ে নিয়েছে। আজকে আমার ওপর পুলিশি তাণ্ডব চলছে। গত ৩ মাস যাবত এ তাণ্ডব চলে আসছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় বসুরহাট পৌরসভা কার্যালয়ে নিজ ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে এসে ২৪ মিনিটের বক্তব্যে এসব কথা বলেন কাদের মির্জা।
তিনি বলেন, আমি খবর পেয়েছি এস.পি, এ.এস.পি ও কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আমার দলের গ্রেপ্তারকৃত নেতা সিরাজপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিরাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী নাজিম উদ্দিন মিকনকে ক্রস ফায়ারে দেবে। এধরনের ঘটনা কোম্পানীগঞ্জে কোনদিনও ঘটতে দেইনি। যদি এধরনের কোন ঘটনা ঘটে তাহলে কোম্পানীগঞ্জে রক্তের হলি খেলা চলবে। কারো সন্তান রক্ষা পাবে না। হত্যার বদলে হত্যা হবে। কাউকে ছেড়ে দেওয়া হবে না। পুলিশ তুমি যতই কর, তোমার বেতন ৪১২।
কাদের মির্জা আরও বলেন, সন্ত্রাসীরা আমার ছেলের ওপর হামলা করেছে, আমার বাড়িতে বোমা হামলা করেছে। এঘটনায় একজনকেও গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ। অথচ আমার পৌরসভা কার্যালয়ে ইফতার নিয়ে আমার অনুসারীরা ঢুকতে পারে না। তাদের গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাওয়া হয়।




সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি