রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, 2০২1
যে কারণে জনপ্রিয় হচ্ছে তুর্কি অ্যাপ বিপ
হাজারিকা অনলাইন ডেস্ক
Published : Tuesday, 19 January, 2021 at 7:48 PM

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জি-মেইলে আগে সবার কাছে জনপ্রিয় ছিল ইয়াহু। বর্তমানে ইয়াহুর জায়গা দখল করে নিয়েছে জি-মেইল। ঠিক তেমনি হোয়াটসঅ্যাপের জায়গা দখল করে নিতে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা নিয়ে এসেছে তুরস্কভিত্তিক অ্যাপ ‘বিপ’। ইতোমধ্যে ‘বিপ’ অ্যাপ ব্যবহারকারীদের কাছে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।
বিশ্বের অন্য অ্যাপগুলোর তুলনায় ‘বিপ’ অ্যাপে ব্যবহাকারীদের নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে। হ্যাকাররা ইন্টারনেটের অন্ধকার জগতে ঘোরাফেরা করেন একজনের ব্যবহৃত ‘বিপ’ অ্যাপ হ্যাকিং করতে। কিন্তু ‘বিপ’ অ্যাপ হ্যাকার সহজেই হ্যাকিং করতে পারবে না। ফলে তাৎক্ষণিক বার্তা আদান-প্রদানে তুরস্কভিত্তিক অ্যাপটির দিকে ঝুঁকছেন অনেক ব্যবহারকারী।

‘বিপ’ অ্যাপে ভিডিও কলিং ও মেসেজিং সহজেই করা যায়। তুরস্ক ও বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহারকারীদের মধ্যে উদ্বেগ তৈরি হওয়ার প্রেক্ষাপটে তুরস্কের ‘বিপ’ অ্যাপ এখন অনেকে দেশে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে বাংলাদেশে এই অ্যাপের জনপ্রিয়তা সবাইকে ছাড়িয়েছে। গুগল প্লে স্টোর থেকে বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের অ্যাপ ডাউনলোডের র‍্যাংকিং বিবেচনা করে দেখা যাচ্ছে যে বিপের ডাউনলোড মাত্র একদিনের ব্যবধানে ৯২ ধাপ এগিয়ে সবার শীর্ষে উঠে এসেছে। বাংলাদেশ দীর্ঘদিন ধরে জনপ্রিয়তার একেবারে উপরের দিকে থাকা ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক লাইট-এর মতো অ্যাপগুলোকে পেছনে ফেলে তালিকার এক নম্বরে রয়েছে তুরস্কের মেসেজিং অ্যাপ বিপ।

সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে যে ব্যবহারকারীদের কিছু তথ্য তারা তাদেরই সহযোগী কোম্পানির সঙ্গে শেয়ার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে হোয়াটসঅ্যাপে আদান-প্রদান করা বার্তা এবং তথ্যের গোপনীয়তা বজায় থাকবে কি না- তা নিয়ে ব্যবহারকারীদের মাঝে উদ্বেগ তৈরি হয়।
অন্যদিকে বিপ অ্যাপ ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে সংস্থাটি। বলা হয়েছে, এটি এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড, অর্থাৎ ভয়েস কল এবং মেসেজ আদান-প্রদান গোপন থাকবে এবং এটি কেউ হ্যাক করতে পারবে না। এই অ্যাপ অনেকটা হোয়াটসঅ্যাপ-সহ অন্যান্য ভিডিও কলিং ও মেসেজিং অ্যাপের মতো করেই কাজ করে।

আইওএস চালিত আইফোন এবং অ্যান্ড্রয়েড চালিত মোবাইল ফোনে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া ডেস্কটপেও ব্যবহার করা যায় এই অ্যাপ। তুরস্কের গণমাধ্যমের খবর বলা হচ্ছে যে মোবাইল ফোন কোম্পানি টার্কসেল বিপ অ্যাপ উদ্ভাবন করে ২০১৩ সালে। বিশ্বের ১৯২টি দেশে এই অ্যাপ ব্যবহার করা হচ্ছে এবং ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই ছিল ইউরোপের বিভিন্ন দেশে।

গোপনীয়তা

বিপ অ্যাপের মাধ্যমে অডিও-ভিডিও কল, মেসেজ, ছবি এবং ভিডিও আদান-প্রদান করা যায়। অ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, এখানে সিক্রেট চ্যাট করার ব্যবস্থাও রয়েছে। কোনও ব্যবহারকারী যদি নির্দিষ্ট সময় পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ মুছে দিতে চান, তাহলে সে অনুযায়ী সময় সেট করা যাবে।
এই অ্যাপটির গোপনীয়তার বিষয়ে টার্কসেল-এর জেনারেল ম্যানেজার মুরাত এরকান তুরস্কের পত্রিকা ডেইলি সাবাহ বলেছেন, ব্যবহারকারীদের তথ্যগুলো এনক্রিপটেড ভল্ট-এ রাখি। শুধু ব্যবহারকারীরাই এটি খুলতে পারে। আমরা কিছুই দেখতে পাই না।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) তথ্যমতে, দেশে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের ২৫ শতাংশ স্মার্ট ফোন। আর ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১১ কোটি। ২০২০ সালের এক হিসেব মতে, বিশ্বে প্রায় দুই বিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের। তবে গত এক সপ্তাহেই ২০ লাখ ব্যবহারকারী হারিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি