বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
আইন অনুযায়ী নুরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা
Published : Wednesday, 23 September, 2020 at 8:28 PM

স্টাফ রিপোর্টার: ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে ঢাবি শিক্ষার্থীর দায়ের করা দুটি মামলার বিষয়ে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।
মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নুরের বিরুদ্ধে ঢাবি শিক্ষার্থী একটি মামলা করেছেন। মামলাটি পুলিশ তদন্ত করছে। বিষয়টি আমাদের নলেজে রয়েছে। যেভাবে এড্রেস করা দরকার সেভাবেই পুলিশ তদন্ত করছে। আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
গত রোববার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থী লালবাগ থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলাটি করেন। সেই মামলায় ছয়জনকে আসামি করা হয়। নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়েছে। গতকাল রাতে নুরসহ ছয়জনকে আটক করে পুলিশ। পরে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। আজ ওই শিক্ষার্থী রাজধানীর কোতায়ালী থানায় ধর্ষণ ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আরেকটি মামলা করেন। মামলায় আসামিরা হলেন- নাজমুল হাসান সোহাগ, হাসান আল মামুন, নুরুল হক নুর, মো. সাইফুল ইসলাম, নাজমুল হুদা, আবদুল্লাহ হিল বাকি। এর মধ্যে মূল অভিযুক্ত নাজমুল হাসান। এদিকে অপহরণ, ধর্ষণ, ধর্ষণে সহযোগিতা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নূরসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ঢাবির এক ছাত্রীর দায়ের করা মামলার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ১৩ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আদালত।
মঙ্গলবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার মামলার এজাহার গ্রহণ করে কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক নূর আলমকে এই প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। ওই তরুণী বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় মামলাটি করেন। এর আগে লালবাগ থানায় একই আসামিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ এনে একটি মামলা করেন এই তরুণী। পরে সোমবার রাতে এই মামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করাকালে ভিপি নূরসহ ছয়জনকে তুলে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ। তার পরে রাতেই ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা দিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। এদিকে মঙ্গলবার দ্বিতীয় দফায় দায়ের করা মামলায় অপহরণ, এরপর পারস্পরিক সহযোগিতায় ধর্ষণ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগ এনেছেন ওই তরুণী। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ধারা উল্লেখ করে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।
মামলার ৬ আসামি হলেন- বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান সোহাগ (২৮), একই সংগঠনের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন (২৮), ঢাবির কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরু (২৫), বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম (২৮), বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের নাজমুল হুদা (২৫) ও ঢাবির শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহহিল কাফি (২৩)।
মামলায় চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিট থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত এই ঘটনা ঘটে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। আর কোতোয়ালি থানা এলাকার সদরঘাট হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে ঘটনার স্থান উল্লেখ করা হয়েছে।





সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি