শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ফেনীর সব দুর্নীতিবাজের বিচার হবে
আব্দুর রহিম॥
Published : Monday, 3 August, 2020 at 5:50 PM

গত শনিবার ঈদুল আযহার দিন (১আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৪ টায়  দীর্ঘ ২০ বছর পর ফেনীর নিজ বাড়ীতে এসে মুজিব উদ্যানে হাজার হাজার নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে জ্বালাময়ী ভাষন দেন জয়নাল হাজারী। তবে প্রথমেই তিনি তার পিতা-মাতা-ভাই ও আত্নীয়স্বজনদের কবর জিয়ারত করে মুজিব উদ্যানে গিয়ে নেতাকর্মি ও তার সমর্থকদের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এসময় কর্মি-সমর্থক ও আত্মীয়স্বজনদের ফুলেল শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হন জয়নাল হাজারী। দীর্ঘদিন পর তাকে দেখতে পেয়ে কর্মি-সমর্থকরা আবেগে আপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অনেকে। প্রিয় নেতাকে এক নজর দেখতে ভিড় সামলাতে হিমশিম খেতে হয় পুলিশসহ তার নিরাপত্তায় থাকা লোক জনদেরকে। মিছিলে মিছিলে কম্পিত হয় ফেনীর ঐতিহাসিক মুজিব উদ্যান। শ্লোগানে-শ্লোগানে বলা হয় হাজারী ভাই ভয় নেই, রাজপথ ছাড়ি নাই, শেখ হাসিনা ভয় নেই, রাজপথ ছাড়ি নাই।

এদিকে জয়নাল হাজারীর আগমন কে কেন্দ্র করে পুরো ফেনী প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় নিরাপত্তার চাঁদরে ডাকা ছিলো ফেনী শহর। ফেনী শহরে জাই, পুলিশের পাশাপাশি ডিবি পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের মোতায়েন করা হয়। হামলার আশংকায় শহরের বিভিন্ন চেকপোস্টে তল্লাশিও করা হয়। বিকাল থেকে নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে ফেনী শহরের গুরুত্বপুর্ণ প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেয় ফেনী জেলা পুলিশ।
মুজিব উদ্যানে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক যুবলীগের সভাপতি এম আজহারুল হক আরজু, যুগ্ম সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন ভূঞা, এড. কাজী জাহিদ, যুবলীগ নেতা পিটু হাজারী, আওয়ামী লীগ নেতা এড. শহীদুল্ল্যাহ, হাজারিকা পাঠক ফোরমের সভাপতি রুবেল হোসেন, হাজারিকা আইডিগ্রুপের সভাপতি আরিফ হোসেন জয়, হাজারিকা পাঠক ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন,শরীফ চৌধুরী,আলমগীর হোসেন,বারেক হোসেন, হাজারিকা পাঠক ফোরমের সাবেক সভাপতি মো: ইউসুফসহ নেতৃবৃন্দ। সভায় জয়নাল হাজারী বলেন, ফেনী আওয়ামী লীগের অসংখ্য নেতা-কর্মিরা হামলা, মামলা নির্যাতনের শিকার হয়েছে। তারা একরাম, জয়নাল, করিমসহ অসংখ্য নেতাদের হত্যা করছে। বাড়িঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে। লুটপাট করে টাকার পাহাড় গড়ছে। চোর, ডাকাত সকলকে মেম্বার চেয়ারম্যান বানিয়েছে। সরকারি টাকা আত্মসাৎ করে কোটি কোটি টাকা বানাচ্ছে। এদের কারণে সরকারের বদনাম হচ্ছে। ত্যাগী নেতাকর্মিরা দলবিমুখ হচ্ছে। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসকল অনিয়মের প্রতিবাদ করতে হবে। আর এই দুর্নীতিবাজদের বিচার ফেনীতেই হবে বলেন তিনি।
বিকাল ৫টায় মুজিব উদ্যানে তার বক্তব্যে জয়নাল হাজারী আরো বলেন, ইতিপুর্বে যারা আমার জনপ্রিয়তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল, তারা কে কোথায় আছেন? দেখে যান। সাংগঠনিক কোন কর্মসুচী নেই, খাবার আয়োজন নেই, সভা সমাবেশ নেই, কোন জাতীয় নেতার আগমন নেই। কাউকে আসতে বলিনি বা বাধ্য করিনি আবার গোপনে টেলিফোন করে টাকা দেওয়ার কোন প্রলোভন দেখায়নি। শুধু মাত্র মা- বাবাসহ পরিবারের লোকদের কবর জিয়ারত করতে এসেছি। আমার আসার খবর পেয়ে ফেনীর সর্বস্তরের মানুষ বাধা ও রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে আমার বাড়ীতে অর্থাৎ মুজিব উদ্যানে জড়ো হয়েছে। দলীয় সুত্রে আরো জানাযায়, দীর্ঘ একযুগ পর ফেনীর মাস্টার পাড়ায় তার নিজ বাড়ীর বাসভবনে ও মুজিব উদ্যানে ফিরলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য জয়নাল হাজারী।

ঈদের দিন বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি এম্বুলেন্স যোগে নিজ বাড়ীতে আসেন। এসময় হাজার হাজার নেতাকর্মীর ভিড়ও দেখা গেছে। নেতাকর্মীদের নিয়ে মা,বাবা ও ভাইসহ পরিবাবের লোকদের কবর জিয়ারত করেন মু্ক্তিযোদ্ধা জয়নাল হাজারী। এসময় কবর জিয়ারতের মুনাজাত পরিচালনা করেন হাজারিকা প্রতিদিনের সাংবাদিক মো: আব্দুর রহিম।

সময় স্বল্পতার কারনে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে দেওয়া দিনের কর্মসুচী থাকা স্বত্বেও ফুলগাজীর সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক একরামের কবর জিয়ারত করতে পারেন নি তিনি।
 আগামী ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ফেনীতে পালন করার ঘোষণা দেন জয়নাল হাজারী। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দুর্নীতিমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে। তিনি সকল ভেদাভেদ ভুলে নেতা-কর্মিদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।
জয়নাল হাজারীর আগমন উপলক্ষে ফেনীর মাস্টারপাড়াসহ ফেনীর সার্বিক নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদার করা হয়েছিল প্রশাসনের পক্ষ থেকে। ফেনীর পৌরশহরে জনসাধারণের চলা-চলেও ছিলো কঠোর নিরাপত্তা। ফেনীর গুরুত্বপুর্ণ ৪টি পয়েন্টে চেকপোস্টও বসানো হয়েছিলো। মুজিব উদ্যানে নেতা কর্মীদের উদ্দের্শ্যে বক্ত্য শেষে তিনি ফেনীর বড় পীর পাগলা মিয়ার মাজার জিয়ারত করে শনিবার রাত ৮টার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ফিরে যান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বীর মু্ক্তিযোদ্ধা জয়নাল হাজারী। এসময় জেলা আওয়ামীলীগ নেতা আজহারুল হক আরজু ও শাখাওয়াত হোসেন ভুঞা এবং হাজারিকা আইটি বিভাগের প্রধান আরিফ হোসেন জয়, বারেক মজুমদারসহ বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি