বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
দিল্লিতে পরাজয়ের কারণ অতিকথন বললেন অমিত শাহ
Published : Friday, 14 February, 2020 at 6:00 PM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥
দিল্লিতে কেজরিওয়ালের কাছে বিজেপি ধরাশায়ী হওয়ার দুইদিন পর প্রকাশ্য বেরিয়েছেন অমিত শাহ। হার মেনে নিয়ে বলেন, দিল্লির ভোট মূল্যায়নে তার ভুল হয়েছিল। একই সঙ্গে স্বীকার করেন, ‘দেশকে গদ্দারকো, গোলি মারো শালো কো’ বা ‘দিল্লি ভোট ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ’ বিজেপি নেতাদের এ ধরনের অতিকথন উচিত হয়নি। তবে পরাজয়ে সিএএ এর কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেন তিনি।
অমিতসহ বিজেপির সব নেতা জানতেন, দিল্লির মাঠ এবার তৈরি ছিল অরবিন্দ কেজরিওয়ালের পক্ষে। কিন্তু নরেন্দ্র মোদি, রাজনাথ সিংহ, জগৎপ্রকাশ নড্ডাদের সঙ্গে বৈঠকে অমিত শাহই ভরসা দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, দিল্লি বের করে নেবেন। এ জন্য মেরুকরণই হবে প্রধান অস্ত্র। তখনই স্থির হয়, শাহিন বাগই হবে প্রধান ‘প্রতিপক্ষ’। প্রচারে নেমে অমিত বলেছিলেন, ‘ইভিএমের বোতাম এত জোরে টিপুন যেন শাহিন বাগে কারেন্ট লাগে।’ বিজেপির অনুরাগ ঠাকুর, কপিল মিশ্ররাও মেতে উঠেছিলেন বিতর্কিত মন্তব্যে। শাহিন বাগের বিক্ষোভকারীদের টার্গেট করে বিজেপি সংসদ সদস্য প্রবেশ বর্মা বলেছিলেন, তারা নাকি ধর্ষণ করতে পারেন।
দিল্লিতে জিততে অমিত শাহ আয়োজন করেছিলেন পাঁচ হাজারের বেশি সভা। শত শত বিজেপি নেতা ছুটেছেন দিল্লির অলিতে-গলিতে। অমিত শাহ নিজেও দুই ডজনের বেশি সভা করেছেন।
নেতাদের উস্কানিমূলক মন্তব্য সম্পর্কে শাহ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে ‘লাঠিপেটা’ করা নিয়ে রাহুল গান্ধির মন্তব্যের মতো বিজেপি নেতাদের বক্তব্যও দুর্ভাগ্যজনক। উচিত হয়নি। দল তখনই দূরত্ব তৈরি করেছে। হতে পারে এরও খেসারত দিতে হয়েছে ভোটে।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী।  ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : [email protected], Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি