শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭
অভিনব প্রতারণা: ব্যাংক থেকে খোয়া গেল ৮৪ হাজার টাকা!
Published : Tuesday, 14 November, 2017 at 9:26 PM

অভিনব প্রতারণা: ব্যাংক থেকে খোয়া গেল ৮৪ হাজার টাকা!জেলা প্রতিনিধি ॥
সরকারি ব্যাংক বলে কথা, অথচ নেই কোন সিসিটিভি ক্যামেরা। এই সুযোগে ব্যাংকের ভেতর থেকে প্রধান শিক্ষককে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে এসএসসির ফরম পূরণের ৮৪ হাজার টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছে এক প্রতারক। সোমবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের সিংড়া উপজেলার সোনালী ব্যাংকের শাখায়। এ ঘটনার জন্য ওই প্রধান শিক্ষককেই দোষারোপ করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।
এদিকে নির্ধারিত সময় টাকা জমা দিতে না পারায় বিয়াস উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৩ জন শিক্ষার্থীর ফরম পূরণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন ওই পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।
দুপুর ১২টায় বিয়াশ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৩ জন এসএসসি পরীক্ষার্থীর ফরম পূরণের ৮৪ হাজার ১শ টাকা রাজশাহী বোর্ডের অনুকূলে ডিডি করতে ব্যাংকে আসেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক জামাল উদ্দিন। তিনি জানান, কাউন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে টাকা জমা দেয়ার সময় পেছন থেকে অপরিচিত এক লোক ইশারা করে বলে আপনার মনে হয় কিছু টাকা মেঝেতে পড়ে গেছে। এ সময় ডিডির ৮৪ হাজার ১শ টাকা কাউন্টারের সামনে রেখে নিচে তাকাতেই ওই লোকটি কাউন্টারের সামনে থেকে টাকাগুলো নিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হাসান ইমাম নামে এক গ্রাহক বলেন, যখন ঘটনাটি ঘটে- তখন আমি ব্যাংকে ছিলাম। ভুক্তভোগী জামাল উদ্দিন যখন টাকা জমা দিতে আসেন, তখন ক্যাশ কাউন্টারে কোন কর্মকর্তা ছিলেন না। সিকিউরিটি গার্ডও ছিল ওয়াশরুমে। অপরিচিত লোকটি মেঝেতে ১০০, ৫০, ২০, ১০ টাকার বেশকিছু নোট ছড়িয়ে দিয়ে কৌশলে দ্রুত পালিয়ে যায়।
এদিকে ব্যাংকে লেনদেনের জন্য আসা গ্রাহকদের অভিযোগ, সরকারি ব্যাংক হলেও ব্যাংক ও গ্রাহকদের নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা নেই। ফলে ব্যাংকটিতে লেনদেন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এছাড়া সম্প্রতি এক মহিলা গ্রাহকের একই অভিনব কায়দার প্রায় লক্ষাধিক টাকা খোয়া যায়। পরে অবশ্য ওই মহিলার টাকা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ফেরত দিতে বাধ্য হয়।
ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষক জামাল উদ্দিন জানান, ব্যাংক থেকে বিষয়টি কাউকেও না জানাতে বলা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে তিনি থানায় সাধারণ ডায়েরি করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
সোনালী ব্যাংক সিংড়া শাখার ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক আবুল হাসেম টাকা খোয়ানোর ঘটনাকে দুঃখজনক উল্লেখ করে বলেন, ব্যাংকে লেনদেনের সময় গ্রাহকদের সতর্ক হওয়া উচিত। আর ব্যাংক ও গ্রাহকদের নিরাপত্তায় সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করা হয়েছে।
সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় বিকাল ৪টা পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে তিনি ফেসবুকে বিষয়টি জেনেছেন।


সম্পাদক : জয়নাল হাজারী। ফোন : ০২-৯১২২৬৪৯, ০১৭৫৬৯৩৮৩৩৮
মোঃ ইব্রাহিম পাটোয়ারী কর্তৃক ফ্যাট নং- এস-১, জেএমসি টাওয়ার, বাড়ি নং-১৮, রোড নং-১৩ (নতুন), সোবহানবাগ, ধানমন্ডি, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
এবং সিটি প্রেস, ইত্তেফাক ভবন, ১/আর কে মিশন রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত।
আইন উপদেষ্টা : এ্যাডভোকেট এম. সাইফুল আলম। আবু রায়হান (বার্তা সম্পাদক) মোবাইল : ০১৯৬০৪৯৫৯৭০ মোবাইল : ০১৯২৮-১৯১২৯১। মো: জসিম উদ্দিন (চীফ রিপোর্টার) মোবাইল : ০১৭২৪১২৭৫১৬।
বার্তা বিভাগ: ৯১২২৪৬৯, বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন: ০১৯৭৬৭০৯৯৭০ ই-মেইল : hazarikabd@gmail.com, Web : www.hazarikapratidin.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি